শুক্রবার, ০৯ ডিসেম্বর ২০২২, ০৫:২৭ পূর্বাহ্ন

ফেনীতে ছেলের বিরুদ্ধে বাবাকে হত্যার অভিযোগ

প্রতিনিধির / ৩১ বার
আপডেট : শুক্রবার, ১৪ অক্টোবর, ২০২২
ফেনীতে ছেলের বিরুদ্ধে বাবাকে হত্যার অভিযোগ
ফেনীতে ছেলের বিরুদ্ধে বাবাকে হত্যার অভিযোগ

নিহত ব্যক্তির নাম আবদুল মমিন (৬৫)। তিনি উপজেলার চিথলিয়া ইউনিয়নের পূর্ব আলকা গ্রামের বাসিন্দা ছিলেন।

বৃহস্পতিবার (১৩ অক্টোবর) রাত সাড়ে ১০টার দিকে উপজেলার চিথলিয়া ইউনিয়নের পূর্ব আলকা গ্রামে নিজ বাড়িতে বাবাকে মারধর করে ছেলে মো. ফারুক ওরফে রাজিব। পরে রাত সাড়ে ১২টার দিকে ফেনী ২৫০ শয্যা বিশিষ্ট জেনারেল হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় ওই ব্যক্তি মারা যান।

এ ঘটনায় আবদুল মমিনের মেয়ে পানু আক্তার বাদী হয়ে রাতেই পরশুরাম মডেল থানায় হত্যা মামলা করেছেন। মামলার আসামি আবদুল মমিনের ছেলে মো. ফারুক ওরফে রাজিব (৩৫) ও তার শ্যালক আবদুল মজিব ওরফে সুমনকে (৩২) গ্রেপ্তার করে পুলিশ।পুলিশ ও স্থানীয় লোকজনের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, আবদুল মমিনের এক ছেলে ও দুই মেয়ে রয়েছে। আবদুল মমিন ও তার স্ত্রী গ্রামের বাড়িতে থাকতেন।

আবদুল মমিনের ছেলে ফারুক তার স্ত্রী-সন্তান নিয়ে উপজেলা সদরে বাসাভাড়া নিয়ে থাকতেন। রাত সাড়ে ১০টার দিকে ফারুক ও তার শ্যালক আবদুল মজিব গ্রামের বাড়িতে যান। এ সময় আবদুল মমিন ঘুমানোর প্রস্তুতি নিচ্ছিলেন। বাড়িতে আসার পর থেকেই ফারুক ও তার বাবার মধ্যে বাগবিতণ্ডা শুরু হয়।

ফারুকের দাবি, আবদুল মমিন তার স্ত্রীকে নির্যাতন করেন। এ নিয়ে দুজনের মধ্যে বাগবিতণ্ডা চলার একপর্যায়ে ফারুক ক্ষিপ্ত হয়ে আবদুল মমিনের মাথায় লাঠি দিয়ে এলোপাতাড়িভাবে মারতে থাকেন। এতে আবদুল মমিন গুরুতর আহত হলে, ফারুক তার শ্যালককে নিয়ে পালিয়ে যান। পরে আবদুল মমিন ও তার স্ত্রীর চিৎকার শুনে প্রতিবেশীরা এগিয়ে এসে আবদুল মমিনকে মুমূর্ষু অবস্থায় উদ্ধার করে প্রথমে পরশুরাম উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যায়। সেখানে প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে তাকে দ্রুত ফেনী জেনারেল হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়। ওই হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় রাত সাড়ে ১২টায় আবদুল মমিন মারা যান।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো সংবাদ