শিরোনাম:
গ্রাহক পর্যায়ে বিদ্যুতের দাম বাড়ানোর বিষয়ে যাচাইয়ের পর সিদ্ধান্ত : বিদ্যুৎ প্রতিমন্ত্রী টিকা ক্যাম্পেইনে ৭ দিনে টিকা পাচ্ছে ৯০ লাখ মানুষ পয়ঃবর্জ্যের উৎপত্তিস্থলে ব্যবস্থাপনার আহ্বান : ডিএনসিসি মেয়র টিকফা বৈঠকেরা জন্য বাংলাদেশ প্রস্তুতি নিচ্ছে ইডি দপ্তরে জিজ্ঞাসাবাদে দক্ষিণী তারকা বিজয় দেবেরাকোন্ডা ডিএসই ও সিএসই সূচকের ওঠামানার মধ্য দিয়ে লেনদেন চলছে সেভ দ্য চিলড্রেন ‘টেকনিক্যাল ম্যানেজার’ পদে জনবল নিয়োগ পাকিস্তানের কয়লাখনিতে বিস্ফোরণে ৯ জনের মৃত্যু বিশ্বকাপের গ্রুপ পর্ব থেকে ছিটকে পড়ার শঙ্কায় জার্মানি শেষ ষোলোয় পা রেখেছে আর্জেন্টিনা, কোয়ার্টারের পথে এগিয়ে
বৃহস্পতিবার, ০১ ডিসেম্বর ২০২২, ০১:৪৯ অপরাহ্ন

জিপিএসের বিকল্প হিসেবে ব্যবহার হতে পারে স্টারলিং

প্রতিনিধির / ২১ বার
আপডেট : শনিবার, ২৯ অক্টোবর, ২০২২
জিপিএসের বিকল্প হিসেবে ব্যবহার হতে পারে স্টারলিং
জিপিএসের বিকল্প হিসেবে ব্যবহার হতে পারে স্টারলিং

সম্প্রতি যুক্তরাষ্ট্রের ইউনিভার্সিটি অব টেক্সাসের একদল গবেষক স্টারলিংক কোম্পানির ডাউনলিংকের সংকেত কাঠামো (সিগন্যাল স্ট্রাকচার) অত্যন্ত নিখুঁতভাবে পর্যবেক্ষণ করে অসংখ্য দরকারি ডাটা খুঁজে পেয়েছেন। যদিও স্টারলিংকের সিগন্যালের সঠিক প্যারামিটারগুলো অজানা, কিন্তু প্যাকেটগুলো যাতে সঠিকভাবে আসে তা নিশ্চিত করতে ট্রান্সমিশনে খুব সুনির্দিষ্ট সময়ের ডাটা এবং আরেকটি টেলিমেট্রি (রেডিওর মাধ্যমে স্বয়ংক্রিয় উপায়ে ডাটা প্রেরণ ও পরিমাপণ পদ্ধতি) থাকে যাতে প্রেরক ও প্রাপক সংযুক্ত থাকতে পারে।

গবেষক দলটি একটি একক উপগ্রহ থেকে আসা সংকেতগুলোকে সতর্কতার সঙ্গে বিশ্লেষণ করেছেন এবং উপগ্রহের সঠিক অবস্থানের সঙ্গে সেই ডেটা একত্র করেছেন। এতে তারা একটি নির্দিষ্ট পরিমাণে ট্রান্সমিশন ডিকোড করতে সক্ষম হয়েছেন।

বর্তমানে পৃথিবীর কক্ষপথে প্রায় তিন হাজার উপগ্রহ আছে স্টারলিংকের। একটি নতুন গবেষণার বরাতে টেকক্রাঞ্চের এক প্রতিবেদনে বলা হয়, স্পেসএক্সের কোনো প্রকার সহযোগিতা ছাড়াই জিপিএসের বিকল্প হিসেবে ব্যবহার হতে পারে স্টারলিংক।

প্রযুক্তিবিষয়ক নিউজ ওয়েবসাইট দ্য রেজিস্টার বলছে, ধারণাটি নতুন নয়। অনেক বছর আগেই এর সম্ভাবনা নিয়ে পর্যবেক্ষণ করা হয়েছিল। বর্তমানে স্পেসএক্স গ্রাহকদের পরিষেবা প্রদানের প্রতি মনোযোগ দেয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে।

টেক্সাস ইউনিভার্সিটির গবেষক দলটি স্পেসএক্সের সহযোগিতা ছাড়াই নিজ উদ্যোগে সম্ভাবনাটি অনুসন্ধান করছে। তারা স্টারলিংক থেকে ব্যবহারকারীদের ডাটা অ্যাকসেস করছে না। এর পরিবর্তে তারা শুধু নেটওয়ার্কটির সিঙ্ক হওয়া স্ট্রিংস ডাটার সময়ক্রম ও অন্যান্য যান্ত্রিক ব্যবহারের উপযোগী ডাটাগুলোকে পর্যবেক্ষণ করেছে।

সিগন্যালটি ব্যবহার করে একজন প্রকৃত স্টারলিংক ব্যবহারকারীর অবস্থান বের করার চেষ্টা করে। স্টারলিংক সিগন্যালে ওই ব্যবহারকারীর অবস্থান যেখানে দেখানো হয়েছিল তারা এর ৩০ মিটারের মধ্যে তাকে খুঁজে পেতে সক্ষম হয়েছিল। যদিও এটি জিপিএসের চেয়ে ভালো নয়, তবে স্পেসএক্স যদি প্রকল্পটিকে সমর্থন দেয় তবে এটি দ্রুত এবং আরো নির্ভুল হতে পারে।

সফটওয়্যার আপডেট করে স্যাটেলাইটগুলোর পাঠানো সংকেত ও কিছু ডাটা সংশোধনের দ্বারা সামঞ্জস্য করে স্টারলিংকের ট্রান্সমিশনগুলোকে কাজে লাগিয়ে এক মিটারের মধ্যে নির্দিষ্ট ব্যক্তিকে শনাক্ত করা যেতে পারে। এটি বাস্তবায়ন করতে স্পেসএক্সের কোনো বাড়তি খরচ করতে হবে না।

এটি শুধু একটি ভোক্তা প্রযুক্তি প্রকল্প নয়, কেননা এর সামরিক ও বেসামরিক ব্যবহারের ক্ষেত্র রয়েছে। ভোক্তা ও সামরিক উভয়ের জন্য এটি ব্যবহার করার ক্ষমতাও আকর্ষণীয়। স্টারলিংকের সাহায্যে সামরিক বাহিনী মাঠের মধ্যে যানবাহন খুঁজে পেতে পারে, এমনকি তারা বাড়ির ভেতরে কিংবা ভূগর্ভে থাকলেও। এজন্য এটি জিপিএসের একটি সাশ্রয়ী বিকল্প হতে পারে। খরচ হ্রাসের বিষয়টিও আকর্ষণীয়। টাইমিং ডাটাও বেশ নির্ভুল, যা জিপিএস টাইমিং ডাটার নির্ভুলতা যাচাই করতে সহায়ক হতে পারে। এটি স্বায়ত্তশাসিত মাধ্যমের দ্বারাও ব্যবহার করা যেতে পারে। বর্তমানে এটি উন্নয়নের প্রাথমিক পর্যায়ে রয়েছে। গবেষক দলটি সবে এর সম্ভাবনার বিষয়টি নিয়ে যাচাই-বাছাই করছে।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো সংবাদ