সোমবার, ২৪ জুন ২০২৪, ১১:১২ অপরাহ্ন

পোশাক অবশ্যই ক্ষতিকর উপাদানমুক্ত ও হতে হবে :ইইউ

প্রতিনিধির / ১৫৬ বার
আপডেট : মঙ্গলবার, ১৫ নভেম্বর, ২০২২
পোশাক অবশ্যই ক্ষতিকর উপাদানমুক্ত ও হতে হবে :ইইউ
পোশাক অবশ্যই ক্ষতিকর উপাদানমুক্ত ও হতে হবে :ইইউ

ইউরোপীয় ইউনিয়নের (ইইউ) বাজারে যাওয়া বস্ত্র ও পোশাক অবশ্যই ক্ষতিকর উপাদানমুক্ত, টেকসই ও পুনরায় উৎপাদনযোগ্য হতে হবে। এ ছাড়া উৎপাদন ব্যবস্থায় সামাজিক অধিকারের প্রতিও মর্যাদাশীল হতে হবে। এই বিষয়ে সতর্ক থাকতে হবে সরবরাহ চেইনের সব পক্ষকে। এ জন্য পরিবেশ সুরক্ষা এবং শিল্পকারখানার সবুজ ও ডিজিটাল রূপান্তরের প্রয়োজন রয়েছে।

ইন্টারন্যাশনাল অ্যাপারেল ফেডারেশনের (আইএএফ) সম্মেলনে এসব কথা বলেছেন ইইউর বস্ত্র ও পোশাক খাতের প্রতিনিধি সংস্থা ইউরোটেক্সের মহাপরিচালক ড্রিক ভ্যানটেঝেম। গতকাল সোমবার ঢাকায় এই সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়। সপ্তাহব্যাপী মেইড ইন বাংলাদেশ উইক উপলক্ষে আইএএফের বার্ষিক এই সম্মেলন এবার ঢাকায় অনুষ্ঠিত হলো। রাজধানীর হোটেল র‌্যাডিসনে দিনব্যাপী বিভিন্ন কর্মসূচি ছিল এ উপলক্ষে। আলোচনার আয়োজন করা হয় চারটি পৃথক প্যানেলে।

সম্মেলনের শুরুতে ইউরোপীয় ইউনিয়ন সাসটেইনেবল টেক্সটাইল স্ট্র্যাটেজি বিষয়ে মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন ইউরোটেক্সের মহাপরিচালক। তিনি বলেন, বস্ত্র ও পোশাকের ক্ষেত্রে ইইউর তিনটি কৌশল রয়েছে- টেকসই, শিল্পের প্রতিরোধ ক্ষমতা ও বৈশ্বিক আধুনিক ধারণা। আগামী ২০৩০ সাল পর্যন্ত বস্ত্র খাতে ইইউর নীতি নির্দেশনার কথা তুলে ধরে তিনি বলেন, এসব নীতি বাস্তবায়নে একটি কর্মপরিকল্পনাও রয়েছে। নতুন একটি নিয়ন্ত্রণ কাঠামোও সম্প্রতি এর সঙ্গে যুক্ত হয়েছে।

এগুলোর মূলকথা হচ্ছে- পরিবেশের সুরক্ষা, সরবরাহ চেইনে যার যা দায়িত্ব তা যথাযথভাবে পরিপালন, টেক্সটাইল বর্জ্য বাইরে আসতেনা দেওয়ার বাধ্যবাধকতা, সবুজ এবংডিজিটাল রূপান্তর। বৈশ্বিক টেকসই টেক্সটাইল ও ফ্যাশন শিল্পের স্বার্থে এসব বিষয়ে সতর্ক হওয়া এবং সম্মিলিতভাবে কাজ করার আহ্বান জানান তিনি।

সম্মেলনে পোশাক খাতের টেকসই উন্নয়নে উদ্ভাবনী জ্ঞান এবং গবেষণায় ইন্টারন্যাশনাল অ্যাপারেল ফেডারেশনের (আইএএফ) সহায়তা চেয়েছে বিজিএমইএ। পোশাক খাতের প্রায় এক দশকের রূপান্তরের কথা তুলে ধরে ফারুক হাসান বলেন, শিল্প খাতে নিরাপদ কর্মপরিবেশের রোল মডেল হিসেবে সম্মান পাচ্ছে বাংলাদেশ। সবচেয়ে বেশি সবুজ কারখানা এখন বাংলাদেশে। পেশাগত স্বাস্থ্য নিরাপত্তা, শ্রমিকদের দক্ষতা উন্নয়ন, পণ্য উন্নয়ন কৌশল আয়ত্ত করতে বিজিএমইএর সেন্টার অব ইনোভেশন প্রতিষ্ঠাসহ বিভিন্ন কৌশল নেওয়ার কথা জানান তিনি।

সম্মেলনে আইএএফের প্রেসিডেন্ট সিম অ্যালটনসহ শীর্ষ কর্মকর্তা এবং সদস্য ৪০ দেশের প্রতিনিধি অংশ নেন। প্যানেল আলোচনায় পোশাক ও পরিবেশ বিশেষজ্ঞ, উন্নয়ন সহযোগীরা অংশ নেন।

মেড ইন বাংলাদেশ উইকের দ্বিতীয় দিনে গতকাল ‘ঢাকা অ্যাপারেল এক্সপো’ উদ্বোধন করেন বিজিএমইএ সভাপতি মো. ফারুক হাসান। রাজধানীর বসুন্ধরায় আন্তর্জাতিক কনভেনশন সেন্টারে (আইসিসিবি) আয়োজিত প্রদর্শনীতে রয়েছে তৈরি পোশাক, কাপড় এবং সুতা, অ্যাকসেসরিজ, কেমিক্যালস ও মেশিনারিজ। তিন দিনের এই প্রদর্শনী আগামীকাল বুধবার শেষ হবে।
এদিকে মেইড ইন বাংলাদেশ উইকের তৃতীয় দিনে আজ মঙ্গলবার সবুজ প্রযুক্তির বিভিন্ন কারখানা পরিদর্শন করবেন ব্র্যান্ড ও ক্রেতা প্রতিনিধিরা। ডেনিম এক্সপো ও ঢাকা অ্যাপারেল সামিটও শুরু হবে আজ। আগামী দুই দিন চলবে এই তিন কর্মসূচি।
বিশ্বদরবারে বাংলাদেশ এবং পোশাক খাতের ব্র্যান্ড ইমেজ বাড়াতে দেশে তৈরি পোশাক খাতের রপ্তানিকারক উদ্যোক্তাদের সংগঠন বিজিএমইএ সপ্তাহব্যাপী বিভিন্ন অনুষ্ঠানের মধ্য দিয়ে মেইড ইন বাংলাদেশ উইকের আয়োজন করেছে। গত রোববার প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা কর্মসূচি উদ্বোধন করেন।

বাংলাদেশ অ্যাপারেলস এক্সচেঞ্জ (বিএই) এই আয়োজনের প্রধান অংশীদার। দেশে প্রথমবারের মতো এই আয়োজন উপলক্ষে ১৬০ দেশের ৫৫০ ক্রেতা ও ব্র্র্যান্ড প্রতিনিধি এখন ঢাকায় রয়েছেন। এ উপলক্ষে তৈরি পোশাকের বড় বাজার যুক্তরাষ্ট্র, ইউরোপীয় ইউনিয়নসহ (ইইউ) বিভিন্ন দেশ ও জোটের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের প্রতিনিধিরাও বিভিন্ন কর্মসূচিতে অংশ নিয়েছেন।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো সংবাদ