শনিবার, ০৪ ফেব্রুয়ারী ২০২৩, ০৯:০৭ পূর্বাহ্ন

২০২২-২৩ অর্থবছরের জুলাই-নভেম্বর পর্যন্ত রফতানির তথ্য প্রকাশ

প্রতিনিধির / ২৩ বার
আপডেট : শনিবার, ৩ ডিসেম্বর, ২০২২
২০২২-২৩ অর্থবছরের জুলাই-নভেম্বর পর্যন্ত রফতানির তথ্য প্রকাশ
২০২২-২৩ অর্থবছরের জুলাই-নভেম্বর পর্যন্ত রফতানির তথ্য প্রকাশ

রফতানি উন্নয়ন ব্যুরো (ইপিবি) ২০২২-২৩ অর্থবছরের জুলাই-নভেম্বর পর্যন্ত বাংলাদেশের রফতানির তথ্য প্রকাশ করেছে।প্রকাশিত পরিসংখ্যান অনুসারে, উল্লিখিত সময়ে বাংলাদেশের তৈরি পোশাক রফতানি মূল্য দাঁড়িয়েছে ১৮ দশমিক ৩৪ বিলিয়ন মার্কিন ডলার, যা ২০২১-২২ অর্থবছরের একই সময়ের তুলনায় ১৫ দশমিক ৬১ শতাংশ বৃদ্ধি পেয়েছে।

ক্যাটাগরি অনুযায়ী বিশ্লেষণ থেকে দেখা যায় যে, নিটওয়্যারের রফতানির পরিমাণ ছিল ১০ দশমিক ১১ বিলিয়ন মার্কিন ডলার, যেখানে ওভেন পোশাক থেকে রফতানি আয় ৮ দশমিক ২১ বিলিয়ন মার্কিন ডলার, যা গত বছরেরে একই সময়ের তুলনায় প্রবৃদ্ধি যথাক্রমে ১২ দশমিক ৫৫ শতাংশ এবং ১৯ দশমিক ৬১ শতাংশ।

যদি আমরা একক মাসের তথ্য বিশ্লেষণ করি তাহলে দেখি, দেশের তৈরি পোশাক রফতানি ২০২১ সালের নভেম্বর মাসের ৩ দশমিক ২৩ বিলিয়ন মার্কিন ডলার থেকে ২০২২ সালের একই মাসে ৩৫ দশমিক ৩৬ শতাংশ বৃদ্ধি পেয়ে ৪ দশমিক ৩৭ বিলিয়ন মার্কিন ডলারে পৌঁছেছে।

রফতানির পরিমাণ বৃদ্ধি যুক্তি দিয়ে ব্যাখ্যা করা কঠিন। মূল্যস্ফীতির প্রভাবে পোশাকের ইউনিটের দাম বৃদ্ধি, কাঁচামালের মূল্য বৃদ্ধি এবং সেইসঙ্গে আগের মাসগুলোতে অর্ডার বৃদ্ধির কারণে রফতানির পরিমাণ বাড়ার কারণ হতে পারে।
বিশ্বব্যাপী বাণিজ্য এবং অর্থনৈতিক পরিস্থিতি হতাশাজনক বলে মনে হচ্ছে এবং বিশ্বব্যাপী খুচরা ব্যবসা একটি কঠিন সময়ের মধ্য দিয়ে যাচ্ছে।

তাই এই ধরনের রফতানির বৃদ্ধিকে আত্মতুষ্টির কারণ হিসেবে বিবেচনা করা ঠিক হবে না। আমরা বরং সতর্ক এবং একইসঙ্গে ভবিষ্যতের বিষয়ে আশাবাদী কারণ পোশাক শিল্পটি একটি টেকসই শিল্পে রূপান্তরিত হচ্ছে, যা আমাদের সবচেয়ে বড় শক্তি।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো সংবাদ