শনিবার, ০৪ ফেব্রুয়ারী ২০২৩, ০৮:৩৬ পূর্বাহ্ন

দেশ করদাতাদের কাছে ঋণী : অর্থমন্ত্রী

প্রতিনিধির / ২৩ বার
আপডেট : শনিবার, ১০ ডিসেম্বর, ২০২২
দেশ করদাতাদের কাছে ঋণী : অর্থমন্ত্রী
দেশ করদাতাদের কাছে ঋণী : অর্থমন্ত্রী

অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল বলেছেন, ‘বাংলাদেশের অর্থনীতির বর্তমান যে অর্জন, সেটা সরকারের একক অর্জন নয়। এ অর্জনে উন্নয়ন অগ্রযাত্রায় করদাতাদের ভূমিকা অনেক। তাদের ত্যাগের কারণেই আজ এখানে আমরা আসতে পেরেছি। দেশ করদাতাদের কাছে ঋণী।’শনিবার রাজধানীর হোটেল ইন্টার কন্টিনেন্টালে সেরা ভ্যাট প্রদানকারীদের সম্মাননা অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন। ভ্যাট দিবস ও ভ্যাট সপ্তাহ উপলক্ষে এ অনুষ্ঠানের আয়োজন করে জাতীয় রাজস্ব বোর্ড (এনবিআর)। অনুষ্ঠানে এনবিআরের চেয়ারম্যান আবু হেনা মো. রহমাতুল মুনিমের সভাপতিত্বে বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন ব্যবসায়ীদের শীর্ষ সংগঠন এফবিসিসিআইর সভাপতি মো. জসিম উদ্দিন।

সারা দেশে আজ পালিত হচ্ছে ১২তম জাতীয় ভ্যাট দিবস-২০২২। একইসঙ্গে ১০ থেকে ১৫ ডিসেম্বর ভ্যাট সপ্তাহ উদযাপনের লক্ষ্যে নানা কর্মসূচি নিয়েছে এনবিআর। অনুষ্ঠানে জাতীয় পর্যায়ে উৎপাদন, ব্যবসা ও সেবা খাতের সর্বোচ্চ ভ্যাট প্রদানকারী ৯টি প্রতিষ্ঠানকে সম্মাননা সনদ ও পুরস্কার তুলে দেন অর্থমন্ত্রী।এ সময় অর্থমন্ত্রী বলেন, ‘সম্প্রতি আন্তর্জাতিক মুদ্রা তহবিলের (আইএমএফ) প্রতিনিধি দল বাংলাদেশে এসেছিল। এ দেশের অর্থনীতি কোন পর্যায়ে তা দেখার জন্য এসেছিল তারা। ওই সময় তারা মনপ্রাণ খুলে বলে গেছেন বাংলাদেশের যে অগ্রগতি, যে অর্জন, এটা অসামান্য।’

মুস্তফা কামাল বলেন, ‘১৪ বছর আগে জিডিপির আকার ১০০ বিলিয়ন ডলার নিয়ে যাত্রা শুরু করেছি। এখন চারগুণ বেড়ে হয়েছে ৪৬৫ ডলার। একইভাবে মাথাপিছু আয় ছিল ৬৮৬ ডলার। যা বেড়ে হয়েছে ২ হাজার ৮৬৪ ডলার। আমাদের এ উন্নয়ন-অগ্রযাত্রায় করদাতাগণের ভূমিকা অনেক। তাদের ত্যাগের কারণেই আজ এখানে আমরা আসতে পারছি।’কর দেওয়া ধর্মীয় দায়িত্ব উল্লেখ করে তিনি বলেন, ‘আমরা এখন মধ্যম আয়ের দেশ। আমাদের লক্ষ্য ২০৩০ সালের মধ্যে উচ্চ মধ্যম আয়ের দেশ হওয়া। আর ২০৪১ সালে উন্নত দেশের কাতারে যাওয়া। এ লক্ষ্য বাস্তবায়নের জন্য কর দিতে হবে। কর দেওয়া ধর্মীয় দায়িত্বও। আপনার যদি কর না দিতেন তাহলে পিছিয়ে পড়া মানুষদের জন্য কিছু করা সম্ভব হতো না।’

শিগগিরই ভ্যাট সংগ্রহ পদ্ধতিকে আধুনিকায়ন করে ডিজিটালাইজ করা হবে উল্লেখ করে অর্থমন্ত্রী আরও বলেন, ‘আমাদের এ স্বপ্ন বাস্তবায়নে সবাইকে অংশগ্রহণ করতে হবে। এতে টেকসই উন্নয়ন সম্ভব হবে।’


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো সংবাদ