সোমবার, ৩০ জানুয়ারী ২০২৩, ১০:৩৫ পূর্বাহ্ন

জিপিএ পেয়েও প্রথম সারির কলেজে ভর্তি হতে পারবে না লক্ষাধিক শিক্ষার্থী

প্রতিনিধির / ১৯ বার
আপডেট : মঙ্গলবার, ২০ ডিসেম্বর, ২০২২
জিপিএ পেয়েও প্রথম সারির কলেজে ভর্তি হতে পারবে না লক্ষাধিক শিক্ষার্থী
জিপিএ পেয়েও প্রথম সারির কলেজে ভর্তি হতে পারবে না লক্ষাধিক শিক্ষার্থী

সারাদেশের ৪ হাজার ৮০৬টি কলেজে উচ্চমাধ্যমিকে ভর্তি কার্যক্রম শুরু হয়েছে। এবার মোট আসন ২২ লাখ ৬৯ হাজার ৪২টি। আবেদন পড়েছে প্রায় সাড়ে ১৩ লাখ। ঢাকা শিক্ষা বোর্ডের আওতাধীন ১ হাজার ৫৪টি কলেজে আসন ৫ লাখ ২১ হাজারের মতো। এর মধ্যে সরকারি-বেসরকারি প্রথম সারির কলেজ রয়েছে অন্তত ২০টি। সেখানে বিজ্ঞান, বাণিজ্য ও মানবিক বিভাগ মিলে আসন প্রায় ৩৫ হাজার। অথচ ঢাকা বোর্ডে শুধু জিপিএ-৫ পাওয়া শিক্ষার্থী রয়েছে ৬৪ হাজার ৯৮৪ জন। সর্বোচ্চ জিপিএ পেয়েও প্রথম সারির কলেজে ভর্তি হতে পারবে না অন্তত ৩০ হাজার শিক্ষার্থী। সারাদেশে এভাবে হিসাব করলে এমন শিক্ষার্থীর সংখ্যা দাঁড়াবে লক্ষাধিক।

ঢাকা শিক্ষা বোর্ড সূত্রে জানা যায়, উচ্চমাধ্যমিকে ভর্তিতে গত ৮ থেকে ১৫ ডিসেম্বর পর্যন্ত অনলাইন আবেদন গ্রহণ করা হয়। এতে সারাদেশে আবেদন পড়েছে ১৩ লাখ ৪৬ হাজার ১৪৬টি। আগামী ৩১ ডিসেম্বর রাতে ফল প্রকাশ করা হবে। প্রথম ধাপে ফল প্রকাশের পর দ্বিতীয় ও তৃতীয় ধাপের আবেদন, যাচাই-বাছাই ও ফল প্রকাশ করা হবে। পাঠদান শুরু ২ ফেব্রুয়ারি থেকে।

 

শিক্ষা বোর্ডের সংশ্লিষ্টরা জানান, প্রথম ধাপের আবেদনে ঢাকার ২০ কলেজে বেশি আবেদন এসেছে। এসব কলেজে আবেদন জমা পড়েছে নির্ধারিত আসনের তিন থেকে পাঁচগুণ পর্যন্ত। অধিকাংশ আবেদনকারী জিপিএ-৫ পাওয়া। এসব কলেজে আসন রয়েছে ৩৫ হাজারের মতো। ঢাকা শিক্ষা বোর্ডের আওতায় এবার জিপিএ-৫ পাওয়া শিক্ষার্থী প্রায় ৬৫ হাজার। ফলে প্রথম ধাপে শুধু ঢাকা শিক্ষা বোর্ডে ৩০ হাজার সর্বোচ্চ ফলধারী শিক্ষার্থী আবেদন করেও ভর্তি থেকে বঞ্চিত হবে। সারাদেশে এমন দুই শতাধিক কলেজে দেড় লাখ শিক্ষার্থী ভর্তির সুযোগ পেলেও লক্ষাধিক জিপিএ-৫ ধারীকে পড়তে হবে তুলনামূলক কম মানের প্রতিষ্ঠানে।

আসনের বেশি আবেদন যেসব কলেজে
খোঁজ নিয়ে জানা যায়, প্রথম ধাপে আবেদন বেশি পাওয়া কলেজের মধ্যে ২০টি কলেজে দুই লাখের বেশি আবেদন জমা হয়েছে। এসব কলেজে আসন সংখ্যা ৩৫ হাজারের মতো। তার মধ্যে- ঢাকা ইম্পেরিয়াল কলেজে তিন বিভাগে ১৮শ আসন, ঢাকা রেসিডেন্সিয়াল স্কুল অ্যান্ড কলেজে ১৫০, আদমজী ক্যান্টনমেন্ট কলেজে ২৫শ ৭০, শহীদ রমিজ উদ্দিন ক্যান্টনমেন্ট কলেজে ৮শ, বিএএফ শাহীন কলেজে ২ হাজার ৯৫, বিএফ শাহীন কুর্মিটোলা কলেজে ৩ হাজার ৭৩২, ঢাকা কলেজে ১২শ, বীরশ্রেষ্ঠ মুন্সি আব্দুর রউফ কলেজে ২ হাজার ৬০, মনিপুর স্কুল অ্যান্ড কলেজে ৭শ ৫০, ঢাকা কর্মাস কলেজে ৩ হাজার ৬১০, সরকারি বাংলা কলেজে ১৬শ ৮০, ন্যাশনাল আইডিয়াল কলেজে ৮শ ৮৫, ঢাকা রেসিডেন্সিয়াল মডেল কলেজে ১১শ ২৫, ঢাকা উদয়ন গভ. কলেজে ১১শ ২৫, মতিঝিল আইডিয়াল স্কুল অ্যান্ড কলেজে ১১শ ৭০, সিদ্ধেশরী গার্লস কলেজে ১২শ ৩০, ভিকারুননিসা নূন স্কুল অ্যান্ড কলেজে ২৫শ ৬১, রাজউক উত্তরা মডেল কলেজে ২৫শ এবং গভ. সায়েন্স কলেজে ৩ হাজার ৭৭৮টিসহ মোট ৩৫ হাজার আসন রয়েছে।

ঢাকা শিক্ষা বোর্ডের কলেজ পরিদর্শক আবু তালেব মো. মোয়াজ্জেম হোসেন জাগো নিউজকে বলেন, একাদশ শ্রেণিতে প্রতি বছর সারাদেশে ১৫ লাখ শিক্ষার্থী ভর্তি হয়। মোট আসন রয়েছে সাড়ে ২২ লাখের বেশি। এর বাইরে মেডিকেল টেকনোলজি, পলিটেকনিক্যাল রয়েছে। কিছু শিক্ষার্থী বিদেশে পড়তে যায়।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো সংবাদ