শনিবার, ০৪ ফেব্রুয়ারী ২০২৩, ০৮:৫৩ পূর্বাহ্ন

দুই মেয়েকে নিয়ে জাপানে ‘পালানোর চেষ্টা’ জাপানি মায়ের

প্রতিনিধির / ১৫ বার
আপডেট : রবিবার, ২৫ ডিসেম্বর, ২০২২
দুই মেয়েকে নিয়ে জাপানে ‘পালানোর চেষ্টা’ জাপানি মায়ের
দুই মেয়েকে নিয়ে জাপানে ‘পালানোর চেষ্টা’ জাপানি মায়ের

আদালতের রায় অমান্য করে দুই সন্তানকে নিয়ে জাপানে ফিরে যাওয়ার পথে জাপানি মা এরিকো নাকানোকে ফিরিয়ে দিয়েছে ইমিগ্রেশন পুলিশ। সন্তানদের বাংলাদেশি নাগরিক বাবা অভিযোগ জানালে বিমানে ওঠার আগেই তাদের আটকে দেওয়া হয়। পরে বিমানবন্দর থেকে সন্তানদের নিয়ে বাসায় ফিরে যান মা এরিকো।

জানা গেছে, গত শুক্রবার মধ্যরাতে দুই সন্তানকে নিয়ে হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে যান জাপানি মা এরিকো নাকানো। সিঙ্গাপুর এয়ারলাইন্সের একটি ফ্লাইটে তারা জাপানে ফিরতে চেয়েছিলেন। বোর্ডিং পাসও পেয়েছিলেন। কিন্তু শেষ মুহূর্তে বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত বাবা ইমরান শরীফ সেখানে হাজির হয়ে আদালতের রায়ের কাগজপত্র দেখান। এতে সন্তানদের নিয়ে দেশ ছাড়তে আদালতের নিষেধাজ্ঞা থাকায় ইমিগ্রেশন পুলিশ তাদের আটকে দেয়।

সন্তানদের বাবা ইমরান শরীফ সংবাদমাধ্যমকে বলেন, পারিবারিক আদালতে মামলা চলছে। এটি নিষ্পত্তি হওয়ার আগে বাচ্চাদের বিদেশে নেওয়া যাবে না। তবে নিষ্পত্তির আগ পর্যন্ত বাচ্চারা তাদের মায়ের দায়িত্বে থাকবে।

ইমরান শরীফের আইনজীবী মির্জা মো. নাহিদ হাসান বলেন, সন্তানদের জাপানি মা দেশত্যাগের নিষেধাজ্ঞা অমান্য করেছেন। তিনি আদালতের নির্দেশনাও ভুল বুঝেছেন। আগে মামলা নিষ্পত্তি হতে হবে, তারপর সিদ্ধান্ত আসবে বাচ্চারা বিদেশে গমন করতে পারবে কি পারবে না। আর তিনি এখন বাচ্চাদের কাস্টডিয়ান, গার্ডিয়ান নন।

সন্তানদের জাপানি মা এরিকো নাকানো সংবাদমাধ্যমকে বলেন, আদালতের দেওয়া রায় তিন মাস সময় পেরিয়ে গেছে। এটি ডিসেম্বর মাস চলে। তাই সন্তানদের নিয়ে আমি জাপান ফিরতে চাই।

উল্লেখ্য, ২০২১ সালে দুই মেয়ে জেসমিন ও লাইলাকে নিয়ে জাপান থেকে বাংলাদেশে চলে আসেন বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত ইমরান শরীফ। পরে মেয়েদের ফিরে পেতে বাংলাদেশে আসেন জাপানি মা এরিকো নাকানো। চলে দীর্ঘ আইনি লড়াই। সর্বশেষ চলতি বছরের ফেব্রুয়ারিতে আপিল বিভাগ নির্দেশনা দেন যে, দুই সন্তান থাকবে জাপানি মায়ের কাছে। তবে, তাদের থাকতে হবে বাংলাদেশেই।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো সংবাদ