রবিবার, ২৯ জানুয়ারী ২০২৩, ০৯:৫১ অপরাহ্ন

স্বপ্নের মেট্রোরেলে যাত্রী পরিবহন ২৯ ডিসেম্বর

প্রতিনিধির / ১৩ বার
আপডেট : রবিবার, ২৫ ডিসেম্বর, ২০২২
স্বপ্নের মেট্রোরেলে যাত্রী পরিবহন ২৯ ডিসেম্বর
স্বপ্নের মেট্রোরেলে যাত্রী পরিবহন ২৯ ডিসেম্বর

আগামী ২৮ ডিসেম্বর দেশের প্রথম মেট্রোরেলের উদ্বোধন হলেও সবার জন্য উন্মুক্ত হবে পরদিন বৃহস্পতিবার (২৯ ডিসেম্বর) থেকে। শুরুতে সীমিত পরিসরে যাত্রী নিয়ে চলবে মেট্রো। ট্রেনের সংখ্যাও থাকবে কম। ধীরে ধীরে বাড়ানো হবে যাত্রী এবং ট্রেন। তিন মাসের মধ্যে পূর্ণাঙ্গ পরিচালনায় আসবে দেশের প্রথম মেট্রো। তার আগেই জনবল নিয়োগ এবং প্রশিক্ষণের কাজ শেষ করা হবে।

এ প্রকল্পের মধ্য দিয়ে দেশ প্রথমবারের মতো মেট্রোরেল যুগে পা রাখতে যাচ্ছে। প্রথম দিন উত্তরার দিয়াবাড়ী থেকে আগারগাঁও অংশের উদ্বোধন হবে। মেট্রোরেল সেবার প্রথম ট্রেনটি চালাবেন মরিয়ম আফিজা নামে এক নারী চালক। প্রায় ২১ কিলোমিটারের এ প্রকল্পের মতিঝিল হয়ে কমলাপুর পর্যন্ত কাজ শেষ হবে ২০২৫ সালে।উদ্বোধনের দিন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা মেট্রোতে ভ্রমণ করবেন আগারগাঁও থেকে উত্তরা পর্যন্ত। পরের দিন থেকেই যাত্রীদের জন্য উন্মুক্ত হবে মেট্রো। টিকেট বিক্রিও শুরু হবে।

প্রথমদিকে পাঁচটি ট্রেনে সকালে আর বিকেলে কয়েকটি করে ট্রিপ পরিচালনা করা হবে। পরে উত্তরা থেকে আগারগাঁও পর্যন্ত দশটি ট্রেন চলবে। ট্রেনে যাত্রীদের ওঠানামা ও আসনে বসা-এসব বিষয়ে অভ্যস্ত ও পরিচিত করাতে শুরুতে স্টেশনে ট্রেন কিছুটা বাড়তি সময় অপেক্ষা করবে।এজন্য উত্তরা উত্তর স্টেশন থেকে আগারগাঁও যেতে সময় লাগবে প্রায় ২০ মিনিট। পরে তা ১৬ থেকে ১৭ মিনিটে নেমে আসবে। ইতোমধ্যে মেট্রোর পূর্ণাঙ্গ পরিচালনার জন্য জনবল নিয়োগ এবং প্রশিক্ষণ কাজও চলছে। আগামী এক বছর মেট্রোরেল পরিচালনার জন্য সরকার এক হাজার কোটি টাকা বরাদ্দও দিয়েছে ডিএমটিসিএল’কে।

ঢাকা ম্যাস ট্রানজিট কোম্পানি লিমিটেড (ডিএমটিসিএল)-এর ব্যবস্থাপনা পরিচালক এম এ এন ছিদ্দিক বলেন, দুই থেকে তিন মাসের ভেতরে একদম শতভাগ অপারেশন যেভাবে চলে, সেভাবে মেট্রো চলবে। প্রথমে সকালে এবং বিকেলে চলার এক সপ্তাহ পর আমরা সময় বাড়াবো।প্রথমদিকে আমরা পরিপূর্ণ যাত্রী নেব না। কিন্তু যখন মানুষ অভ্যস্ত হয়ে যাবে, তখন পর্যায়ক্রমে যাত্রী সংখ্যা বাড়ানো হবে। ‘বহরে ১২টি ট্রেন আছে। এর মধ্যে ১০টি ট্রেন শুরুতে চলাচল করবে। দুটি স্ট্যান্ডবাই থাকবে। পথে কোনো সমস্যা হলে ওই দুটি ব্যবহার করা হবে।

ডিএমটিসিএল কর্মকর্তারা বলছেন, প্রথমে সব স্টেশনে থামবে না ট্রেন। শুরুর স্টেশন উত্তরা উত্তর থেকে ছেড়ে ট্রেনটি পল্লবী গিয়ে থামবে। এরপর না থেমে আগারগাঁও চলে যাবে। মাঝের স্টেশনগুলোতে ট্রেন থামানোর কার্যক্রম শুরু হবে পরে। এই পথে মোট ৯টি স্টেশন রয়েছে।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো সংবাদ