মঙ্গলবার, ৩১ জানুয়ারী ২০২৩, ১২:৫২ পূর্বাহ্ন

আল নাসেরে যোগ দিলেন রোনালদো

প্রতিনিধির / ১১ বার
আপডেট : শনিবার, ৩১ ডিসেম্বর, ২০২২
আল নাসেরে যোগ দিলেন রোনালদো
আল নাসেরে যোগ দিলেন রোনালদো

গত জুলাই-অগাস্টের দলবদলেও শোনা যায়, রোনালদো দল ছাড়তে চান যেন। এমন কোথাও যেতে চান, যেখানে খেলতে পারবেন চ্যাম্পিয়ন্স লিগে। অবশ্য তিনি নিজে কখনও তেমন কিছু বলেননি, সত্যি হয়ে ধরা দেয়নি এই গুঞ্জন। তবে ইউনাইটেডে তার শেষটা হয় বড্ড বাজে।ক্যারিয়ারের শেষ দিকে এসে ইউরোপীয় ফুটবলের পাঠ চুকিয়ে দিলেন ক্রিস্তিয়ানো রোনালদো। প্রায় দেড় মাস দলবিহীন থাকার পর সৌদি আরবের ক্লাব আল নাসেরে যোগ দিলেন পর্তুগিজ মহাতারকা।

কাতার বিশ্বকাপ চলাকালীনই শোনা যাচ্ছিল এই গুঞ্জন। দুই পক্ষের আলোচনা শেষে এবার হয়ে গেল চুক্তিও। দুই বছরের মেয়াদে আল নাসেরে যোগ দিলেন আন্তর্জাতিক ফুটবলের রেকর্ড গোলদাতা।

বিশ্বকাপ শুরুর আগে বহুল আলোচিত-সমালোচিত এক সাক্ষাৎকারে সাবেক ক্লাব ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডের মালিকপক্ষ ও কোচ এরিক টেন হাগের কড়া সমালোচনা করেন রোনালদো। দাবি করেন, তার সঙ্গে বিশ্বাসঘাতকতা করেছে ক্লাব কর্তৃপক্ষ। এর কয়েক দিনের মধ্যে দুই পক্ষের সমঝোতায় তার সঙ্গে চুক্তি বাতিল করে ইউনাইটেড।

২০০২-০৩ মৌসুমে সিনিয়র ফুটবলে যাত্রা শুরু রোনালদোর। স্পোর্তিং লিসবনে প্রতিভার ঝলক দেখিয়ে নজর কাড়েন ইউনাইটেডের কিংবদন্তি কোচ স্যার অ্যালেক্স ফার্গুসনের। ২০০৩ সালের অগাস্টে রোনালদো যোগ দেন ওল্ড ট্র্যাফোর্ডে। শুরু হয় তার বিশ্ব সেরাদের একজন হওয়ার পথে যাত্রা। ছয় বছর পর রেকর্ড ট্রান্সফার ফিতে পা রাখেন সান্তিয়াগো বের্নাবেউয়ে। রিয়াল মাদ্রিদের জার্সিতেই ক্যারিয়ারের সেরা সময় কাটান রোনালদো। ক্লাবটির ইতিহাসে সর্বোচ্চ গোলের রেকর্ড গড়ার পথে জেতেন অসংখ্য শিরোপা।

নতুন চ্যালেঞ্জের খোঁজে ২০১৮ সালে রোনালদো যোগ দেন ইউভেন্তুসে। ইতালিয়ান ক্লাবটিতে তার ব্যক্তিগত পারফরম্যান্স আশানুরূপ হলেও দলগত সাফল্য খুব বেশি পাননি। অবশ্য প্রথম দুই মৌসুমে সেরি আ ঠিকই জিতেছিল তারা। সেখান থেকে তার বিদায়টাও তেমন সুখকর হয়নি। দলবদলের একেবারে শেষ মুহূর্তে ইউনাইটেডে যোগ দেন রোনালদো, যা নিয়ে পরে সমালোচনাও শুনতে হয় তাকে। সব বিতর্ক পেছনে ফেলার জন্য যা দরকার ছিল, পুরনো ঠিকানায় ফিরে তাও করতে পারেননি তিনি।

২০২১-২২ মৌসুমেও অবশ্য ব্যক্তিগত পারফরম্যান্সে ভালোই করেন রোনালদো। কিন্তু দলগতভাবে পুরোপুরি ব্যর্থ ছিল ইউনাইটেড। ষষ্ঠ স্থানে থেকে লিগ শেষ করায় এবার চ্যাম্পিয়ন্স লিগেও নেই তারা।ক্যারিয়ারের শেষ দিকে এসে ইউরোপীয় ফুটবলের পাঠ চুকিয়ে দিলেন ক্রিস্তিয়ানো রোনালদো। প্রায় দেড় মাস দলবিহীন থাকার পর সৌদি আরবের ক্লাব আল নাসেরে যোগ দিলেন পর্তুগিজ মহাতারকা।কাতার বিশ্বকাপ চলাকালীনই শোনা যাচ্ছিল এই গুঞ্জন। দুই পক্ষের আলোচনা শেষে এবার হয়ে গেল চুক্তিও। দুই বছরের মেয়াদে আল নাসেরে যোগ দিলেন আন্তর্জাতিক ফুটবলের রেকর্ড গোলদাতা।

বিশ্বকাপ শুরুর আগে বহুল আলোচিত-সমালোচিত এক সাক্ষাৎকারে সাবেক ক্লাব ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডের মালিকপক্ষ ও কোচ এরিক টেন হাগের কড়া সমালোচনা করেন রোনালদো। দাবি করেন, তার সঙ্গে বিশ্বাসঘাতকতা করেছে ক্লাব কর্তৃপক্ষ। এর কয়েক দিনের মধ্যে দুই পক্ষের সমঝোতায় তার সঙ্গে চুক্তি বাতিল করে ইউনাইটেড।
২০০২-০৩ মৌসুমে সিনিয়র ফুটবলে যাত্রা শুরু রোনালদোর। স্পোর্তিং লিসবনে প্রতিভার ঝলক দেখিয়ে নজর কাড়েন ইউনাইটেডের কিংবদন্তি কোচ স্যার অ্যালেক্স ফার্গুসনের। ২০০৩ সালের অগাস্টে রোনালদো যোগ দেন ওল্ড ট্র্যাফোর্ডে। শুরু হয় তার বিশ্ব সেরাদের একজন হওয়ার পথে যাত্রা। ছয় বছর পর রেকর্ড ট্রান্সফার ফিতে পা রাখেন সান্তিয়াগো বের্নাবেউয়ে। রিয়াল মাদ্রিদের জার্সিতেই ক্যারিয়ারের সেরা সময় কাটান রোনালদো। ক্লাবটির ইতিহাসে সর্বোচ্চ গোলের রেকর্ড গড়ার পথে জেতেন অসংখ্য শিরোপা।

নতুন চ্যালেঞ্জের খোঁজে ২০১৮ সালে রোনালদো যোগ দেন ইউভেন্তুসে। ইতালিয়ান ক্লাবটিতে তার ব্যক্তিগত পারফরম্যান্স আশানুরূপ হলেও দলগত সাফল্য খুব বেশি পাননি। অবশ্য প্রথম দুই মৌসুমে সেরি আ ঠিকই জিতেছিল তারা। সেখান থেকে তার বিদায়টাও তেমন সুখকর হয়নি। দলবদলের একেবারে শেষ মুহূর্তে ইউনাইটেডে যোগ দেন রোনালদো, যা নিয়ে পরে সমালোচনাও শুনতে হয় তাকে। সব বিতর্ক পেছনে ফেলার জন্য যা দরকার ছিল, পুরনো ঠিকানায় ফিরে তাও করতে পারেননি তিনি।

২০২১-২২ মৌসুমেও অবশ্য ব্যক্তিগত পারফরম্যান্সে ভালোই করেন রোনালদো। কিন্তু দলগতভাবে পুরোপুরি ব্যর্থ ছিল ইউনাইটেড। ষষ্ঠ স্থানে থেকে লিগ শেষ করায় এবার চ্যাম্পিয়ন্স লিগেও নেই তারা।

ক্যারিয়ারের শেষ দিকে এসে ইউরোপীয় ফুটবলের পাঠ চুকিয়ে দিলেন ক্রিস্তিয়ানো রোনালদো। প্রায় দেড় মাস দলবিহীন থাকার পর সৌদি আরবের ক্লাব আল নাসেরে যোগ দিলেন পর্তুগিজ মহাতারকা।কাতার বিশ্বকাপ চলাকালীনই শোনা যাচ্ছিল এই গুঞ্জন। দুই পক্ষের আলোচনা শেষে এবার হয়ে গেল চুক্তিও। দুই বছরের মেয়াদে আল নাসেরে যোগ দিলেন আন্তর্জাতিক ফুটবলের রেকর্ড গোলদাতা।

বিশ্বকাপ শুরুর আগে বহুল আলোচিত-সমালোচিত এক সাক্ষাৎকারে সাবেক ক্লাব ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডের মালিকপক্ষ ও কোচ এরিক টেন হাগের কড়া সমালোচনা করেন রোনালদো। দাবি করেন, তার সঙ্গে বিশ্বাসঘাতকতা করেছে ক্লাব কর্তৃপক্ষ। এর কয়েক দিনের মধ্যে দুই পক্ষের সমঝোতায় তার সঙ্গে চুক্তি বাতিল করে ইউনাইটেড।

২০০২-০৩ মৌসুমে সিনিয়র ফুটবলে যাত্রা শুরু রোনালদোর। স্পোর্তিং লিসবনে প্রতিভার ঝলক দেখিয়ে নজর কাড়েন ইউনাইটেডের কিংবদন্তি কোচ স্যার অ্যালেক্স ফার্গুসনের। ২০০৩ সালের অগাস্টে রোনালদো যোগ দেন ওল্ড ট্র্যাফোর্ডে। শুরু হয় তার বিশ্ব সেরাদের একজন হওয়ার পথে যাত্রা। ছয় বছর পর রেকর্ড ট্রান্সফার ফিতে পা রাখেন সান্তিয়াগো বের্নাবেউয়ে। রিয়াল মাদ্রিদের জার্সিতেই ক্যারিয়ারের সেরা সময় কাটান রোনালদো। ক্লাবটির ইতিহাসে সর্বোচ্চ গোলের রেকর্ড গড়ার পথে জেতেন অসংখ্য শিরোপা।

নতুন চ্যালেঞ্জের খোঁজে ২০১৮ সালে রোনালদো যোগ দেন ইউভেন্তুসে। ইতালিয়ান ক্লাবটিতে তার ব্যক্তিগত পারফরম্যান্স আশানুরূপ হলেও দলগত সাফল্য খুব বেশি পাননি। অবশ্য প্রথম দুই মৌসুমে সেরি আ ঠিকই জিতেছিল তারা। সেখান থেকে তার বিদায়টাও তেমন সুখকর হয়নি। দলবদলের একেবারে শেষ মুহূর্তে ইউনাইটেডে যোগ দেন রোনালদো, যা নিয়ে পরে সমালোচনাও শুনতে হয় তাকে। সব বিতর্ক পেছনে ফেলার জন্য যা দরকার ছিল, পুরনো ঠিকানায় ফিরে তাও করতে পারেননি তিনি।

২০২১-২২ মৌসুমেও অবশ্য ব্যক্তিগত পারফরম্যান্সে ভালোই করেন রোনালদো। কিন্তু দলগতভাবে পুরোপুরি ব্যর্থ ছিল ইউনাইটেড। ষষ্ঠ স্থানে থেকে লিগ শেষ করায় এবার চ্যাম্পিয়ন্স লিগেও নেই তারা।ক্যারিয়ারের শেষ দিকে এসে ইউরোপীয় ফুটবলের পাঠ চুকিয়ে দিলেন ক্রিস্তিয়ানো রোনালদো। প্রায় দেড় মাস দলবিহীন থাকার পর সৌদি আরবের ক্লাব আল নাসেরে যোগ দিলেন পর্তুগিজ মহাতারকা।

কাতার বিশ্বকাপ চলাকালীনই শোনা যাচ্ছিল এই গুঞ্জন। দুই পক্ষের আলোচনা শেষে এবার হয়ে গেল চুক্তিও। দুই বছরের মেয়াদে আল নাসেরে যোগ দিলেন আন্তর্জাতিক ফুটবলের রেকর্ড গোলদাতা।

বিশ্বকাপ শুরুর আগে বহুল আলোচিত-সমালোচিত এক সাক্ষাৎকারে সাবেক ক্লাব ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডের মালিকপক্ষ ও কোচ এরিক টেন হাগের কড়া সমালোচনা করেন রোনালদো। দাবি করেন, তার সঙ্গে বিশ্বাসঘাতকতা করেছে ক্লাব কর্তৃপক্ষ। এর কয়েক দিনের মধ্যে দুই পক্ষের সমঝোতায় তার সঙ্গে চুক্তি বাতিল করে ইউনাইটেড।

২০০২-০৩ মৌসুমে সিনিয়র ফুটবলে যাত্রা শুরু রোনালদোর। স্পোর্তিং লিসবনে প্রতিভার ঝলক দেখিয়ে নজর কাড়েন ইউনাইটেডের কিংবদন্তি কোচ স্যার অ্যালেক্স ফার্গুসনের। ২০০৩ সালের অগাস্টে রোনালদো যোগ দেন ওল্ড ট্র্যাফোর্ডে। শুরু হয় তার বিশ্ব সেরাদের একজন হওয়ার পথে যাত্রা। ছয় বছর পর রেকর্ড ট্রান্সফার ফিতে পা রাখেন সান্তিয়াগো বের্নাবেউয়ে। রিয়াল মাদ্রিদের জার্সিতেই ক্যারিয়ারের সেরা সময় কাটান রোনালদো। ক্লাবটির ইতিহাসে সর্বোচ্চ গোলের রেকর্ড গড়ার পথে জেতেন অসংখ্য শিরোপা।

নতুন চ্যালেঞ্জের খোঁজে ২০১৮ সালে রোনালদো যোগ দেন ইউভেন্তুসে। ইতালিয়ান ক্লাবটিতে তার ব্যক্তিগত পারফরম্যান্স আশানুরূপ হলেও দলগত সাফল্য খুব বেশি পাননি। অবশ্য প্রথম দুই মৌসুমে সেরি আ ঠিকই জিতেছিল তারা। সেখান থেকে তার বিদায়টাও তেমন সুখকর হয়নি। দলবদলের একেবারে শেষ মুহূর্তে ইউনাইটেডে যোগ দেন রোনালদো, যা নিয়ে পরে সমালোচনাও শুনতে হয় তাকে। সব বিতর্ক পেছনে ফেলার জন্য যা দরকার ছিল, পুরনো ঠিকানায় ফিরে তাও করতে পারেননি তিনি।

২০২১-২২ মৌসুমেও অবশ্য ব্যক্তিগত পারফরম্যান্সে ভালোই করেন রোনালদো। কিন্তু দলগতভাবে পুরোপুরি ব্যর্থ ছিল ইউনাইটেড। ষষ্ঠ স্থানে থেকে লিগ শেষ করায় এবার চ্যাম্পিয়ন্স লিগেও নেই তারা।আগামী ফেব্রুয়ারিতে ৩৮ বছর পূর্ণ হবে রোনালদোর। তাই একরকম নিশ্চিতভাবে বলে দেওয়া যায়, ক্লাব ফুটবলের ইউরোপ সেরার মঞ্চে আর দেখা যাবে না প্রতিযোগিতাটিতে রেকর্ড ১৮৩ ম্যাচ খেলে রেকর্ড ১৪০ গোল করা মহাতারকাকে।

ইউনাইটেডের হয়ে একটি ও রিয়ালের জার্সিতে চারটি চ্যাম্পিয়ন্স লিগ জয়ী রোনালদোর বিশ্বকাপ অভিযানও আশানুরূপ কাটেনি। আসরে প্রথম ম্যাচেই জালে বল পাঠিয়ে ইতিহাসের প্রথম ফুটবলার হিসেবে বিশ্বকাপের পাঁচ আসরে গোল করার রেকর্ড গড়েন তিনি। তবে এরপর ছন্দ হারিয়ে শুরুর একাদশে জায়গা হারান ৩৭ বছর বয়সী তারকা। মরক্কোর বিপক্ষে হেরে কোয়ার্টার-ফাইনাল থেকে বিদায় নেয় পর্তুগাল।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো সংবাদ