সোমবার, ৩০ জানুয়ারী ২০২৩, ১১:২৯ পূর্বাহ্ন

দুই প্রতিষ্ঠানের বোনাস শেয়ার লভ্যাংশ বাতিল করলো বিএসইবি

প্রতিনিধির / ১৪ বার
আপডেট : সোমবার, ২ জানুয়ারী, ২০২৩
দুই প্রতিষ্ঠানের বোনাস শেয়ার লভ্যাংশ বাতিল করলো বিএসইবি
দুই প্রতিষ্ঠানের বোনাস শেয়ার লভ্যাংশ বাতিল করলো বিএসইবি

পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত মনোস্পুল পেপার এবং পেপার প্রসেসিং অ্যান্ড প্যাকেজিংয়ের পরিচালনা পর্ষদের ঘোষণা করা বোনাস শেয়ার লভ্যাংশ বাতিল করলো নিয়ন্ত্রক সংস্থা বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশন (বিএসইবি)।সোমবার (২ জানুয়ারি) প্রধান শেয়ারবাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ (ডিএসই) থেকে এ তথ্য জানানো হয়।

ডিএসই জানায়— ২০২২ সালের ৩০ জুন সমাপ্ত বছরের জন্য মনোস্পুল পেপারের পরিচালনা পর্ষদ ১০ শতাংশ বোনাস শেয়ার লভ্যাংশ ঘোষণা করে। গত ২৯ সেপ্টেম্বর এ লভ্যাংশ ঘোষণার তথ্য প্রকাশ করা হয়। কোম্পানিটি পরিশোধিত মূলধন বাড়ানোর জন্য এ বোনাস শেয়ার লভ্যাংশ ঘোষণা করে।নিয়মানুযায়ী— তালিকাভুক্ত কোম্পানি বিএসইসির অনুমতি ছাড়া কোনো বোনাস লভ্যাংশ বিতরণ করতে পারে না। এ কারণে মনোস্পুল পেপারের পরিচালনা পর্ষদের ঘোষণা করা লভ্যাংশ বিতরণে বিএসইসির অনুমোদন চেয়ে আবেদন করে কোম্পানিটির কর্তৃপক্ষ। তবে, বিএসইসে সেই আবেদন প্রত্যাক্ষাণ করেছে।

 

১৯৮৯ সালে পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত হওয়া মনোস্পুল পেপারের পরিশোধিত মূলধন মাত্র ৯ কোটি ৩৮ লাখ টাকা। আর শেয়ার সংখ্যা ৯৩ লাখ ৮৮ হাজার ৮২৫টি। এ শেয়ারের মধ্যে উদ্যোক্ত ও পরিচালকদের কাছে আছে ৪৫ শতাংশ। বাকি শেয়ারের মধ্যে ৪৪ দশমিক ৬৮ শতাংশ আছে সাধারণ বিনিয়োগকারীদের কাছে। আর প্রাতিষ্ঠানিক বিনিয়োগকারীদের কাছে আছে ১০ দশমিক ৩২ শতাংশ।অপরদিকে, ২০২২ সালের ৩০ জুন সমাপ্ত বছরের জন্য ৭ শতাংশ বোনাস শেয়ার লভ্যাংশ ঘোষণা করে পেপার প্রসেসিংয়ের পরিচালনা পর্ষদ। গত ২৯ সেপ্টেম্বর এ বোনাস লভ্যাংশ ঘোষণার তথ্য প্রকাশ করা হয়। এ কোম্পানিটিও পরিশোধিত মূলধন বাড়ানোর জন্য এ বোনাস শেয়ার লভ্যাংশ ঘোষণা করে। তবে, বিএসইসি এ লভ্যাংশ বিতরণের অনুমতি চেয়ে করা আবেদন বাতিল করে দিয়েছে।

১৯৯০ সালে পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত হওয়া পেপার প্রসেসিংয়ের পরিশোধিত মূলধন মাত্র ১০ কোটি ৪৫ লাখ টাকা। আর শেয়ার সংখ্যা ১ কোটি ৪ লাখ ৪৯ হাজার ৬০০টি। এ শেয়ারের মধ্যে উদ্যোক্ত ও পরিচালকদের কাছে আছে ৩৫ শতাংশ। বাকি শেয়ারের মধ্যে ৫৯ দশমিক ১৫ শতাংশ আছে সাধারণ বিনিয়োগকারীদের কাছে। আর প্রাতিষ্ঠানিক বিনিয়োগকারীদের কাছে আছে ৫ দশমিক ৮৫ শতাংশ।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো সংবাদ