মঙ্গলবার, ০৭ ফেব্রুয়ারী ২০২৩, ১১:৫০ অপরাহ্ন

নতুন কোচ খুঁজতে হিমশিম খাচ্ছে পাকিস্থান ক্রিকেট বোর্ডে পিসিবি

প্রতিনিধির / ১৫ বার
আপডেট : বুধবার, ১১ জানুয়ারী, ২০২৩
নতুন কোচ খুঁজতে হিমশিম খাচ্ছে পাকিস্থান ক্রিকেট বোর্ডে পিসিবি
নতুন কোচ খুঁজতে হিমশিম খাচ্ছে পাকিস্থান ক্রিকেট বোর্ডে পিসিবি

পাকিস্তান জাতীয় দলের জন্য নতুন কোচ খুঁজতে হিমশিম খাচ্ছে পাকিস্থান ক্রিকেট বোর্ডের (পিসিবি) কর্মকর্তারা। কয়েক দফা আলোচনার পর পাকিস্তানের জাতীয় দলের দায়িত্ব নেয়ার প্রস্তাব ফিরিয়ে দিলেন মিকি আর্থার। পিসিবির ক্ষমতা বদলের পর থেকেই জাতীয় দলের কোচ পরিবর্তনের জন্য সচেষ্ট পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ড।

সাকলাইন মুশতাকের প্রশিক্ষণে ঘরের মাঠে ইংল্যান্ডের কাছে ০-৩ ব্যবধানে টেস্ট সিরিজ হারার পর কোচ পরিবর্তনের কথা ভাবেন পিসিবি চেয়ারম্যান নাজম শেঠি। নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষেও ঘরের মাঠে দুই টেস্টের সিরিজ জিততে পারেনি পাকিস্তান। জাতীয় দলের সাবেক কোচ আর্থারকে আবার দলের দায়িত্ব নেয়ার প্রস্তাব দেয় পিসিবি।

আর্থার এখন ইংল্যান্ডের কাউন্টি ক্লাব ডার্বিশায়ারের কোচ। মাঝ পথে চুক্তি ভাঙতে রাজি হননি তিনি।পিসিবি জানিয়েছে, ’ডার্বিশায়ারের সাথে আর্থারের দীর্ঘ দিনের চুক্তি রয়েছে। আমরা চেয়েছিলাম কোচের দায়িত্ব নিতে না পারলেও ডার্বিশায়ারের দায়িত্ব পালনের পর তিনি পাকিস্তানের জাতীয় দলের পরামর্শদাতা হিসেবে কাজ করবেন। বিষয়টি নিয়ে কয়েক দফা আলোচনা হয়েছে। কিন্তু দুর্ভাগ্যজনকভাবে বিষয়টা বাস্তবায়িত করা যাচ্ছে না। দু’দিকেই কিছু সমস্যা হচ্ছে।’

পিসিবির বিবৃতিতে আরো বলা হয়েছে, একাধিক বড় প্রতিযোগিতার কথা মাথায় রেখে আর্থারকে জাতীয় দলের কোচ হিসেবে ফিরিয়ে আনার কথা ভাবা হয়েছিল। ২০২৩ সালে এশিয়া কাপ ও ওয়ানডে বিশ্বকাপ রয়েছে। ২০২৪ সালে রয়েছে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ। ২০২৫ সালে রয়েছে চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফি। আগামী তিন বছরে চারটি বড় প্রতিযোগিতার কথা মাথায় রেখে আমরা আলোচনা করেছিলাম আর্থারের সাথে।

২০২৫ সালের চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফি পর্যন্ত আর্থারের সাথে জাতীয় দলের কোচ হিসেবে চুক্তি করতে চেয়েছিল পিসিবি। ২০১৬ থেকে ২০১৯ পর্যন্ত পাকিস্তানের জাতীয় দলের কোচ ছিলেন দক্ষিণ আফ্রিকার কোচ আর্থার। তার প্রশিক্ষণে ২০১৭ সালে চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফি জিতেছিল পাকিস্তান। ২০১৯ সালে ওয়ানডে বিশ্বকাপের সেমিফাইনালে পাকিস্তান উঠতে না পারায় চাকরি যায় আর্থারের।পাকিস্তান জাতীয় দলের দায়িত্ব নেয়ার প্রস্তাব আর্থার প্রত্যাখ্যান করলেও হাল ছাড়ছে না পাকিস্তানের ক্রিকেট বোর্ড। সাকলাইনের বিকল্প খোঁজার কাজ চালিয়ে যাওয়া হবে বলে জানানো হয়েছে। পাকিস্তানের জাতীয় দলের এখনকার কোচের ওপর আস্থা নেই পিসিবি কর্মকর্তাদের। পিসিবি জানিয়েছে, ‘এই পরিস্থিতিতে জাতীয় দলের প্রধান কোচের জন্য যোগ্যলোকের সন্ধান চালাচ্ছি আমরা। প্রথম সারির একাধিক নাম আমাদের বিবেচনায় রয়েছে।’

রামিজ রাজার বদলে নাজম চেয়ারম্যানের দায়িত্ব নেয়ার পর নানা পরিবর্তনের পথে হাঁটতে শুরু করেছে পিসিবি। অন্তর্বর্তীকালীন প্রধান নির্বাচক করা হয়েছে শাহিদ আফ্রিদিকে। তার নেতৃত্বে গঠন করা হয়েছে পাঁচ সদস্যের নতুন নির্বাচকমণ্ডলী। পরিবর্তন আনা হচ্ছে ঘরোয়া ক্রিকেটেও। তেমনই জাতীয় দলেও নতুন কোচ নিয়োগ করতে চাইছে পিসিবি।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো সংবাদ