মঙ্গলবার, ৩১ জানুয়ারী ২০২৩, ০৫:০৭ অপরাহ্ন

মেসির ফেরার ম্যাচে এ্যাঞ্জাার্সকে হারিয়েছে পিএসজি

প্রতিনিধির / ১১ বার
আপডেট : বৃহস্পতিবার, ১২ জানুয়ারী, ২০২৩
মেসির ফেরার ম্যাচে এ্যাঞ্জাার্সকে হারিয়েছে পিএসজি
মেসির ফেরার ম্যাচে এ্যাঞ্জাার্সকে হারিয়েছে পিএসজি

বিশ্বকাপে আর্জেন্টিনাকে শিরোপা উপহার দেওয়ার পর প্রথমবারের মত পিএসজির হয়ে মাঠে নেমেছিলেন লিওনেল মেসি। লিগ ওয়ানে ফিরে এসেই গোল পেয়েছেন আর্জেন্টাইন সুপারস্টার। বুধবারের মেসির ফেরার ম্যাচে এ্যাঞ্জাার্সকে ২-০ গোলে হারিয়েছে পিএসজি।বিশ্বকাপের পর মেসি পিএসজির প্রথম তিন ম্যাচে বিশ্রামে ছিলেন। সপ্তাহখানেক আগে তিনি পিএসজির অনুশীলনে ফিরেছেন। কাল তলানির দল এ্যাঞ্জার্সের বিরুদ্ধে মূল দলেই খেলতে নেমেছিলেন এলএম টেন।

প্রায় সাড়ে তিন সপ্তাহ আগে কাতার বিশ্বকাপের ফাইনালে ফ্রান্সকে পেনাল্টিতে পরাজিত করে শিরোপা জয় করেছিল আর্জেন্টিনা। কালকের জয়ে ছয় পয়েন্টের সুস্পষ্ট ব্যবধানে এগিয়ে লিগ টেবিলের শীর্ষস্থান ধরে রেখেছে প্যারিসের জায়ান্টরা। দুই ম্যাচ নিষেধাজ্ঞা ও গোঁড়ালির ইনজুরির কারনে দলের বাইরে থাকার পর কাল ব্রাজিলিয়ান তারকা নেইমারও মাঠে ছিলেন প্রথম থেকেই।এদিকে, কিলিয়ান এমবাপ্পে টানা দ্বিতীয় ম্যাচের মত বিশ্রামে ছিলেন। বিশ্বকাপের পর ছুটি কাটাতে এমবাপ্পে বর্তমানে নিউ ইয়র্কে রয়েছেন। বিশ্বকাপের ফাইনালে হ্যাটট্রিক করা এমবাপ্পে শেষ পর্যন্ত ফ্রান্সকে শিরোপা উপহার দিতে পারেননি।ধারণা করা হচ্ছে, আগামী রোববার রেনের বিরুদ্ধে এ্যাওয়ে ম্যাচে আবারো একসঙ্গে খেলতে নামবেন মেসি-এমবাপ্পে।

এমবাপ্পের অনুপস্থিতিতে আবারো তরুণ স্ট্রাইকার হুগো একিটিকে পার্ক দ্যেস প্রিন্সেসে কাল আক্রমণভাগে জায়গা করে নিয়েছিলেন। নোর্দি মুকিয়েলের ক্রস থেকে পাঁচ মিনিটে একিটিকের গোলে এগিয়ে যায় স্বাগতিকরা। এই গোলের পিছনে অবশ্য মেসিরও অবদান ছিল। কাল পিএসজি তাদের সেরাটা দিতে না পারলেও ১৭ মিনিট বাকি থাকতে মেসি দলের ব্যবধানের পাশাপাশি জয় নিশ্চিত করেন। মৌসুমে এটি তার ১৩তম গোল। এই গোলে মেসির ফিনিশের আগে একিটিকে ও মুকিয়েলেরও অবদান ছিল। প্রথমে গোলটি অফসাইডের কারণে বাতিল করা হলেও ভিএআর শেষ পর্যন্ত গোলের সিদ্ধান্ত দেয়।

ম্যাচ শেষে পিএসজি কোচ ক্রিস্টোফে গ্যালতিয়ের জানান, ‘মেসি দারুণভাবে ফিরে এসেছে। সে খুব স্বস্তি নিয়ে খেলেছে, শারিরীক ভাবেও দারুন ফিট রয়েছে। মেসি ফেরায় পুরো দলের চেহারাই পাল্টে গেছে। আমাদের দলের প্রায় বেশিরভাগ খেলোয়াড়ই বিশ্বকাপ শেষে দলে ফিরেছে। সে কারণে তাদের জন্য আবারো নতুন করে লিগে মনোনিবেশ করা কঠিন হয়ে পড়েছে। আমাদের এখন সবাইকে একত্রিত করাটাই মূল চ্যালেঞ্জ। খেলোয়াড়দের মধ্যে যে সামান্য সম্বনয়হীনতা দেখা দিয়েছে তা কাটিয়ে উঠতে কাজ করা হচ্ছে।’


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো সংবাদ