মঙ্গলবার, ৩১ জানুয়ারী ২০২৩, ০৫:০৩ অপরাহ্ন

ঘুমন্ত রুমমেটের মাথায় ছয়টি কোপ, হত্যার পর মাটিচাপা দেন নাহিদ

প্রতিনিধির / ১৮ বার
আপডেট : মঙ্গলবার, ১৭ জানুয়ারী, ২০২৩
ঘুমন্ত রুমমেটের মাথায় ছয়টি কোপ, হত্যার পর মাটিচাপা দেন নাহিদ
ঘুমন্ত রুমমেটের মাথায় ছয়টি কোপ, হত্যার পর মাটিচাপা দেন নাহিদ

কুমিল্লায় চোর অপবাদ দেওয়ায় ক্ষিপ্ত হয়ে মঞ্জুরুল ইসলাম (২৬) নামের এক যুবককে কুপিয়ে হত্যার পর মাটিচাপা দেওয়ার অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ হত্যাকাণ্ডের তিনদিন পর সোমবার (১৬ জানুয়ারি) দিনগত গভীর রাতে ওই যুবকের লাশ উদ্ধার করে পুলিশ।

নিহত মঞ্জুরুল রংপুরের বদরগঞ্জ থানার আলা মিয়ার ছেলে। এ ঘটনায় জড়িত থাকার অভিযোগে নাহিদ নামের এক যুবককে আটক করা হয়েছে। তার বাড়ি একই জেলার তারাগঞ্জ উপজেলায়। বুড়িচং থানা পুলিশ এ তথ্য জানা গেছে।পুলিশ জানায়, নিহত মঞ্জুরুল ও নাহিদ শ্রমিকের কাজ করতেন। তারা বুড়িচং উপজেলার দূর্গাপুরের নোয়াপাড়া এলাকায় ভাড়া থাকতেন। বেশ কিছুদিন আগে মঞ্জুরুলের পকেট থেকে ১৫০০ টাকা পাওয়া যাচ্ছিল না। মঞ্জুরুল এজন্য নাহিদকে চোর বলেন এবং বিষয়টি স্থানীয়দের জানান। নাহিদের বাবা-মাকেও মোবাইলে জানালে নাহিদ মঞ্জুরুলের ওপর ক্ষিপ্ত হয়ে তাকে হত্যার পরিকল্পনা করেন।

আটক নাহিদ পুলিশকে জানিয়েছেন, গত শুক্রবার রাতে ঘুমন্ত অবস্থায় মঞ্জুরুলের মাথায় দা দিয়ে একাধারে ছয়টি কোপ দিয়ে হত্যা করেন। পরে পার্শবর্তী কাবিলা এলাকায় লাশ মাটিচাপা দেন।বুড়িচং থানার ওসি মারুফ রহমান সাংবাদিকদের জানান, মঞ্জুরুলের নিখোঁজ জিডির সূত্র ধরে তার রুমমেট নাহিদকে আটক করে জিজ্ঞাসাবাদের পরই হত্যার রহস্য বের হয়ে আসতে থাকে। তার দেওয়া তথ্যের ভিত্তিতে লাশ উদ্ধার করা হয়। ময়নাতদন্তের জন্য নিহতের লাশ কুমিল্লা মেডিকেলে পাঠানো হয়েছে।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো সংবাদ