সোমবার, ২৪ জুন ২০২৪, ০৪:৫৫ অপরাহ্ন

সুন্দরবনে গোলপাতা লক্ষ্যমাত্রার চেয়ে কম আহরণ হচ্ছে

প্রতিনিধির / ৮৭ বার
আপডেট : রবিবার, ২৯ জানুয়ারী, ২০২৩
সুন্দরবনে গোলপাতা লক্ষ্যমাত্রার চেয়ে কম আহরণ হচ্ছে
সুন্দরবনে গোলপাতা লক্ষ্যমাত্রার চেয়ে কম আহরণ হচ্ছে

রোববার থেকে সুন্দরবনে গোলপাতা আহরণ মৌসুম শুরু হয়েছে বলে জানিয়েছে বন বিভাগ। বনবিভাগের কাছ থেকে পাস পারমিট নিয়ে গোলপাতা আহরণে বনের অভ্যন্তরে প্রবেশ করবেন নৌকাসহ প্রয়োজনীয় জিনিসপত্র নিয়ে বাওয়ালীরা।এদিকে, সুন্দরবনে গোলপাতা লক্ষ্যমাত্রার চেয়ে কম আহরণ হচ্ছে বলে জানান বন বিভাগের সংশ্লিষ্টরা।

রোববার (২৯ জানুয়ারি) থেকে শুরু হওয়া এ মৌসুম চলবে ৩১ মার্চ পর্যন্ত।

সুন্দরবন পূর্ব বনবিভাগের চাঁদপাই রেঞ্জের (মোংলা) স্টেশন অফিসার মো. ওবায়দুর রহমান জানান, রবিবার (২৯ জানুয়ারী) থেকে গোলপাতা আহরণকারী বাওয়ালীদেরকে পাস পারমিট (অনুমতিপত্র) দেওয়া হবে। এরপর পাস নিয়ে উপকূলের বন নির্ভরশীল বাওয়ালীরা বনের প্রবেশ করবেন। বনে ঢুকে নির্ধারিত কুপ থেকে গোলপাতা কেটে তা নৌকায় তুলবেন তারা।তিনি জানান, সুন্দরবন পূর্ব বনবিভাগের চাঁদপাই রেঞ্জে দুইটি গোলপাতার কুপ হয়েছে। একটি হলো শ্যালা গোলপাতা কুপ আর অপরটি হলো চাঁদপাই গোলপাতা কুপ। এ গোলপাতা আহরণে থাকছে শর্তও। গোলপাতা আহরণের সময় বনের অন্য কোনো ধরনের গাছপালা কাটা যাবে না। কোনো বাওয়ালী যদি গোলপাতার পাশাপাশি অন্য প্রজাতির গাছ কাটেন কিংবা বনের ক্ষতি করেন তাহলে তাদের বিরুদ্ধে বন আইনে কঠোর ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

চাঁদপাই রেঞ্জের (মোংলা) স্টেশন অফিসার জানান, এ মৌসুমে শ্যালা কুপ থেকে চার হাজার মেট্টিক টন ও চাঁদপাই কুপ থেকে তিন হাজার মেট্টিক টন গোলপাতা আহরণের লক্ষ্যমাত্রা ধরা হয়েছে।তিনি জানান, গত মৌসুমে প্রতি কুইন্টাল গোলপাতা আহরণে রাজস্ব নেওয়া হয়েছিল ২৫ টাকা, আর এবার তা বাড়িয়ে করা হয়েছে প্রতি কুইন্টাল ৬৮ টাকা। তবে দিন দিন গোলপাতার ব্যবহার কমে আসায় কুপ থেকে গোলপাতা আহরণের পরিমাণ কমে আসছে। এবারও লক্ষ্যের তুলনায় খুব কম পরিমাণ গোলপাতা আহরণ হবে বলেও জানান বনবিভাগের এ কর্মকর্তা।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো সংবাদ