শনিবার, ১৮ মে ২০২৪, ০৫:৫৭ পূর্বাহ্ন

স্মার্ট বাংলাদেশ গড়ায় সফটওয়্যার তৈরির বিকল্প নেই: স্পিকার

প্রতিনিধির / ৭২ বার
আপডেট : বৃহস্পতিবার, ২৩ ফেব্রুয়ারী, ২০২৩
স্মার্ট বাংলাদেশ গড়ায় সফটওয়্যার তৈরির বিকল্প নেই: স্পিকার
স্মার্ট বাংলাদেশ গড়ায় সফটওয়্যার তৈরির বিকল্প নেই: স্পিকার

বাংলাদেশ জাতীয় সংসদের স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী এমপি বলেছেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে ২০৪১ সালের মধ্যে এ দেশ সুখী-সমৃদ্ধ-স্মার্ট বাংলাদেশে পরিণত হবে। স্মার্ট বাংলাদেশের অন্যতম ভিত্তি স্মার্ট সিটিজেনদের তথ্য ও প্রযুক্তির ব্যবহারে দক্ষ হতে হবে।

স্পিকার বলেন, স্মার্ট বাংলাদেশ গড়ার ক্ষেত্রে সফটওয়্যার তৈরি ও উন্নয়নের কোনো বিকল্প নেই। বৃহস্পতিবার ‘বেসিস সফটেক্সপো ২০২৩’ এর উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন।স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী নারায়ণগঞ্জের পূর্বাচলে বঙ্গবন্ধু বাংলাদেশ-চীন ফ্রেন্ডশিপ এক্সিবিশন সেন্টারে বাংলাদেশ অ্যাসোসিয়েশন অফ সফটওয়্যার অ্যান্ড ইনফরমেশন সার্ভিসেস (বেসিস) আয়োজিত ‘বেসিস সফটেক্সপো ২০২৩’ এর শুভ উদ্বোধন করেন।

বেসিসের প্রেসিডেন্ট রাসেল টি. আহমেদের সভাপতিত্বে এ অনুষ্ঠানে বেসিস সফটেক্সপো ২০২৩ এর আহ্বায়ক আবু দাউদ খান স্বাগত বক্তব্য দেন। বিশেষ অতিথি হিসেবে ডাক ও টেলিযোগাযোগ মন্ত্রী মোস্তাফা জব্বার এবং তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক এমপি বক্তব্য দেন।স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী এমপি বলেন, একাধারে আমাদের সফটওয়্যার নির্ভরশীলতা যেমন বাড়ছে, তথ্যপ্রযুক্তির নব নব আবিষ্কার আমাদের সক্ষমতাকে প্রতিনিয়ত চ্যালেঞ্জ করে চলেছে। এ চ্যালেঞ্জ মোকাবেলায় তরুণদের দক্ষ ও যোগ্য মানবসম্পদে পরিণত করতে হবে।

স্পিকার বলেন, সংসদ সচিবালয়ের দাপ্তরিক কাজেও ই-ফাইলিং এর মাধ্যমে তথ্য ও প্রযুক্তির ব্যবহার শুরু হয়েছে। জাতীয় সংসদে প্রশ্ন জিজ্ঞাসা ও উত্তরে ব্যবহৃত হার্ডকপিগুলো একটি সফটওয়্যারের আওতায় আনার জন্য তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক এমপি এবং বেসিসকে ধন্যবাদ জানান স্পিকার।স্পিকার বলেন, প্রতিষ্ঠার ১৭ বছরে আইসিটির প্রচার, প্রসার ও সফটওয়্যারের উন্নয়নে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে এসেছে। আইসিটি খাতে রপ্তানি আয় বেড়েছে। তিনি আশাবাদ ব্যক্ত করেন যে, বেসিস সব চ্যালেঞ্জ মোকাবেলা করে সামনে এগিয়ে যাবে।

অনুষ্ঠানে বেসিসের সদস্য, দেশি-বিদেশি তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিশেষজ্ঞ, আইটি উদ্যোক্তা, স্পন্সর প্রতিনিধিরা, দর্শনার্থীরা, আমন্ত্রিত অতিথিরা, গণ্যমান্য ব্যক্তিসহ গণমাধ্যম কর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো সংবাদ