রবিবার, ২৬ মে ২০২৪, ১২:২৯ পূর্বাহ্ন

একনেক সভায় অনুমোদনের জন্য উঠছে ১৫ হাজার ৪৮৭ কোটি টাকার প্রকল্প

প্রতিনিধির / ৭০ বার
আপডেট : বৃহস্পতিবার, ৯ মার্চ, ২০২৩
একনেক সভায় অনুমোদনের জন্য উঠছে ১৫ হাজার ৪৮৭ কোটি টাকার প্রকল্প
একনেক সভায় অনুমোদনের জন্য উঠছে ১৫ হাজার ৪৮৭ কোটি টাকার প্রকল্প

এবার রীতি ভেঙে রবিবার অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে জাতীয় অর্থনেতিক পরিষদের নির্বাহী কমিটির (একনেক) সভা। ওই দিন রাজধানীর আগারগাঁওয়ের এনইসি সম্মেলনকক্ষে এ সভা অনুষ্ঠিত হবে। এতে সভাপতিত্ব করবেন প্রধানমন্ত্রী ও একনেক চেয়ারপারসন শেখ হাসিনা। এর আগে সর্বশেষ একনেক সভা হয়েছিল চলতি বছরের ১৭ জানুয়ারি (মঙ্গলবার)। রীতি অনুযায়ী একনেক সভা হয় মঙ্গলবার। তবে এবার নানা কারণে তা হচ্ছে আগামী রবিবার।

সংশ্লিষ্ট সূত্রগুলো বলছে, এবারের একনেক সভা হচ্ছে রবিবার। আর এই সভায় অনুমোদনের জন্য উঠছে ১৫ হাজার ৪৮৭ কোটি টাকার প্রকল্প। মূলত আটটি নতুন প্রকল্প উপস্থাপন করা হবে আগামী একনেকে। এর পাশাপাশি একনেক অবগতির জন্য উপস্থাপন করা হবে আরো আটটি প্রকল্প।সভায় প্রকল্পের আকার ও ব্যয় অনুমোদনের জন্য উপস্থাপন করা হচ্ছে আগের মতোই। এর আগে প্রধানমন্ত্রী ও একনেক চেয়ারপারসন শেখ হাসিনার সভাপতিত্বে মঙ্গলবার (১৭ জানুয়ারি) শেরেবাংলানগরের এনইসি সম্মেলনকক্ষে অনুষ্ঠিত একনেক সভায় ১০ হাজার ৬৪০ কোটি ৫৮ লাখ টাকা ব্যয় সংবলিত ১১টি প্রকল্প অনুমোদন করা হয়। এর মধ্যে সরকারি অর্থায়ন সাত হাজার ৮২৭ কোটি ৫০ লাখ টাকা, আর বৈদেশিক অর্থায়ন দুই হাজার ৮৮০ কোটি ১৮ টাকা।

একনেকে উঠছে যেসব প্রকল্প

আগামী একনেক সভায় যেসব প্রকল্প উপস্থাপন করা হবে তার মধ্যে স্থানীয় সরকার বিভাগের তিনটি, পানিসম্পদ মন্ত্রণালয়ের একটি, বিদ্যুৎ বিভাগের একটি, কারিগরি ও মাদরাসা শিক্ষা বিভাগের একটি, পরিকল্পনা বিভাগের একটি এবং অভ্যন্তরীণ সম্পদ বিভাগের একটি প্রকল্প রয়েছে।সভার নোটিশ অনুযায়ী, স্থানীয় সরকার বিভাগের ‘রেজিলিয়েন্ট ইনফ্রাস্ট্রাকচার ফর এডাপশন অ্যান্ড ভালনারেবিলিটি রিডাকশন প্রজেক্ট (রিভার)’ শীর্ষক প্রকল্পে ব্যয় ধরা হয়েছে চার হাজার ৩২৩ কোটি ৪৭ লাখ টাকা। সরকারি ও বিশ্বব্যাংকের অর্থায়নে প্রকল্পটি বাস্তবায়ন হবে। সরকারি খাতে ৪৮ কোটি ৪৭ লাখ এবং বিশ্বব্যাংক দেবে চার হাজার ২৭৫ কোটি টাকা।

প্রকল্পটি অনুমোদন পেলে চলতি বছরে শুরু হয়ে ২০২৮ সালের জুনে শেষ হবে। দক্ষিণ চট্টগ্রাম অঞ্চলের জনগণের জীবনযাত্রার মান উন্নত করতে একটি প্রকল্প নিয়েছে স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদপ্তর (এলজিইডি)। অবকাঠামো উন্নয়নের মাধ্যমে জীবনমান উন্নয়ন শীর্ষক এই প্রকল্পের ব্যয় ধরা হয়েছে তিন হাজার ৭২৪ কোটি ৪৩ লাখ টাকা। স্থানীয় সরকার বিভাগের ‘ময়মনসিংহ জেলার গ্রামীণ অবকাঠামো উন্নয়ন’ শীর্ষক আরো একটি প্রকল্প একনেকে অনুমোদনের জন্য উপস্থাপন করা হবে। এক হাজার কোটি টাকা ব্যয়ের এই প্রকল্প পুরোটাই সরকারি অর্থায়নে বাস্তবায়িত হবে।

এ ছাড়া বিদ্যুৎ বিভাগের চার হাজার ৩২২ কোটি টাকা ব্যয়ের দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলীয় ট্রান্সমিশন গ্রিড সম্প্রসারণ শীর্ষক প্রকল্পটির প্রথম সংশোধনী প্রস্তাব উপস্থাপন করা হবে একনেক বৈঠকে। এ ছাড়া কারিগরি ও মাদরাসা শিক্ষা বিভাগের ১২৮ কোটি টাকা ব্যয়ের প্রমোটিং জেন্ডার রেসপনসিভ এন্টারপ্রাইজ ডেভেলপমেন্ট অ্যান্ড টিভিইটি সিস্টেম শীর্ষক প্রকল্প, অভ্যন্তরীণ সম্পদ বিভাগের এক হাজার ৬৮৬ কোটি টাকা ব্যয়ে কাস্টমস আধুনিকায়ন ও অবকাঠামো উন্নয়ন প্রকল্প, পরিকল্পনা বিভাগের ৩২ কোটি ৮৬ লাখ টাকা ব্যয়ে আরবান রেজিলিয়েন্স প্রকল্প, পানিসম্পদ মন্ত্রণালয়ের ৩৪৭ কোটি টাকা ব্যয়ে মেঘনা-ধনাগোদা সেচ প্রকল্পের পুনর্বাসন ও নদীতীর সংরক্ষণ প্রকল্প একনেকে অনুমোদনের জন্য উপস্থাপন করা হবে।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো সংবাদ