শনিবার, ২৫ মে ২০২৪, ০২:১৩ পূর্বাহ্ন

রাজস্ব আদায় বাড়াতে এনবিআরকে সহযোগিতা করতে চায় ইউএনডিপি

প্রতিনিধির / ১৭০ বার
আপডেট : মঙ্গলবার, ২৮ মার্চ, ২০২৩
রাজস্ব আদায় বাড়াতে এনবিআরকে সহযোগিতা করতে চায় ইউএনডিপি
রাজস্ব আদায় বাড়াতে এনবিআরকে সহযোগিতা করতে চায় ইউএনডিপি

রাজস্ব আদায় বাড়াতে সহযোগিতার প্রস্তাব দিয়েছে জাতিসংঘের উন্নয়ন কর্মসূচি (ইউএনডিপি)। ভিআইডব্লিউবি’র মাধ্যমে রাজস্ব আদায়ের গতি বাড়াতে এ প্রস্তাব দিয়েছে সংস্থাটি। গত ২৩ মার্চ এনবিআর চেয়ারম্যান আবু হেনা মো. রহমাতুল মুনিমকে প্রস্তাব সংবলিত চিঠি পাঠিয়েছেন সংস্থাটির আবাসিক প্রতিনিধি স্টিফেন লিলার।

চিঠিতে বলা হয়, ইউএনডিপি ও অর্থনৈতিক সহযোগিতা ও উন্নয়ন সংস্থার (ওইসিডি) যৌথ উদ্যোগে প্রতিষ্ঠিত ট্যাক্স ইন্সপেক্টরস উইদআউট বর্ডারসের (টিআইডব্লিউবি) মাধ্যমে এ সহযোগিতা দেওয়া হবে। টিআইডব্লিউবি প্রকল্পে অংশগ্রহণকারী দেশগুলোকে এ সহযোগিতা নিতে কোনো অর্থ খরচ করতে হবে না। ১৮ থেকে ২৪ মাসের এ সহযোগিতা প্রকল্পে অর্থায়ন করবে উন্নয়ন সহযোগী দেশ।টিআইডব্লিউবি ২০১৫ সালে প্রতিষ্ঠিত হয়। সংস্থাটি বিভিন্ন উন্নয়নশীল দেশের ট্যাক্স অডিট সক্ষমতা বাড়াতে সহযোগিতা করে থাকে। এ প্রোগ্রামের আওতায় উন্নত ও উন্নয়নশীল দেশের ট্যাক্স বিশেষজ্ঞরা স্থানীয় ট্যাক্স কর্মকর্তাদের সঙ্গে যৌথভাবে কাজ করে।

চিঠিতে ইউএনডিপির আবাসিক প্রতিনিধি জানিয়েছেন, বিভিন্ন দেশ নিজেদের অভ্যন্তরীণ সম্পদ ব্যবস্থাপনায় নানান ধরনের সমস্যার সম্মুখীন হয়, যা জনগণের প্রয়োজনীয় সেবা ও সহযোগিতা দেওয়ার জন্য গুরুত্বপূর্ণ। এক্ষেত্রে দেশের কর আদায় সক্ষমতা বাড়াতে টিআইডব্লিউবি একটি কার্যকর মাধ্যম।তারা আরও উল্লেখ করেছে, প্রতিষ্ঠার পর থেকে টিআইডব্লিউবি আফ্রিকা, এশিয়া, পূর্ব-ইউরোপ ও লাতিন আমেরিকা ও ক্যারিবিয়ান অঞ্চলে দুইশ কোটি ডলারের অতিরিক্ত কর আদায়ে সহযোগিতা এবং পাঁচশ কোটি ডলারের কর নিরীক্ষা সম্পন্ন করেছে প্রতিষ্ঠানটি। তারা মনে করে, টিআইডব্লিউবির সহযোগিতা নিয়ে এনিবআরও একই ধরনের সফলতা আনতে পারে এবং দেশের অর্থনীতির প্রবৃদ্ধিতে গুরুত্বপূর্ণ অবদান রাখতে পারে।

এ প্রকল্পের আওতায় চুক্তিবদ্ধ হলে উন্নয়নশীল দেশে টিআইডব্লিউবি তাদের অভিজ্ঞ কর বিশেষজ্ঞ পাঠিয়ে থাকে। বিশেষজ্ঞরা দেশের নিরীক্ষক এবং অন্যন্যা কর্মকর্তাদের সঙ্গে মিলে আন্তর্জাতিক করের বিভিন্ন সমস্যা সমাধান, নিরীক্ষার দক্ষতা বৃদ্ধি ও কর সম্পর্কিত জ্ঞান উন্নয়নে কাজ করে থাকে।বিশ্বব্যাপী আগ্রহী দেশের চাহিদানুসারে টিআইডব্লিউবি প্রকল্প পরিচালিত হয়। এছাড়া তারা বিভিন্ন প্রযুক্তিবিষয়ক সহযোগিতা দিয়ে থাকে। যার মধ্যে রয়েছে ঝুঁকিপূর্ণ অডিট কেস বাছাই, অগ্রিম প্রাইসিং অ্যারেঞ্জমেন্টের ক্ষেত্রে অডিট প্রক্রিয়া ও আলোচনা ইত্যাদি।

এছাড়া একাধিক ক্ষেত্রে তারা নিরীক্ষা পরিচালনা করে থাকেন। এর মধ্যে রয়েছে- কৃষি, নির্মাণ, আর্থিক সেবা, হসপিটালিটি, তথ্যপ্রযুক্তি ও যোগাযোগ, উৎপাদন, খনিবিদ্যা ইত্যাদি। তাদের এ প্রকল্প ১৮-২৪ মাস পর্যন্ত চলে। এ সময়ে তারা একাধিকবার এক সপ্তাহ বা দুই সপ্তাহের জন্য অনসাইট সহযোগিতা দিয়ে থাকে। এছাড়া উন্নয়নশীল দেশের কোনো রকম খরচ ছাড়াই এ সেবা দেওয়া হয়। এজন্য উন্নয়ন সহযোগীরা অর্থায়ন করে থাকে।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো সংবাদ