বৃহস্পতিবার, ২৫ এপ্রিল ২০২৪, ০৮:১৩ পূর্বাহ্ন

নতুন জামা-কাপড় কিনে বাড়ি ফেরা হলো না পিতা ও পুত্রের

প্রতিনিধির / ৭১ বার
আপডেট : রবিবার, ৯ এপ্রিল, ২০২৩
নতুন জামা-কাপড় কিনে বাড়ি ফেরা হলো না পিতা ও পুত্রের
নতুন জামা-কাপড় কিনে বাড়ি ফেরা হলো না পিতা ও পুত্রের

ঈদ-উল ফিতরের নতুন জামা-কাপড় কিনে বাড়ি ফেরা হলো না পিতা ও পুত্রের। শনিবার (৮ এপ্রিল) রাত দশটার দিকে ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের মিরসরাই উপজেলার ওয়াহেদপুর ইউনিয়নের জাফরাবাদ এলাকায় এক দুর্ঘটনা দুজনেরই মৃত্যু হয়।

নিহতরা হলেন ডিস ব্যবসায়ী সেলিম উদ্দিন (৩৮) ও তার ছেলে মিনহাজ উদ্দিন (১৩)। মিনহাজ উদ্দিন উপজেলার বড়কমলদহ সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের চতুর্থ শ্রেণীর শিক্ষার্থী। তারা উপজেলার ১৫ নম্বর ওয়াহেদপুর ইউনিয়নের ৮ নম্বর ওয়ার্ডের বড় কমলদহ গ্রামের উকিল বাড়ির বাসিন্দা।পুলিশ জানায়, শনিবার রাত সাড়ে ৯টার দিকে বড় দারোগারহাট বাজার থেকে সেলিম উদ্দিন ও তার ছেলে মিনহাজ উদ্দিন ঈদের কেনাকাটা করে ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের পাশ দিয়ে হেঁটে বাড়ি ফিরছিলেন। এসময় চট্টগ্রামমুখী তরমুজবাহী ট্রাক মহাসড়কের পাশে দাঁড়িয়ে থাকা একটি পিকআপকে ধাক্কা দেয়। পরবর্তীতে পিকআপটি পিতা ও পুত্রকে চাপা দেয়। পিতা-পুত্রকে মুমূর্ষু অবস্থায় স্থানীয়রা উদ্ধার করে সীতাকুণ্ড উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাদের মৃত ঘোষণা করেন।

এসময় ট্রাকের চালকের সহকারী নিমল (২০) গুরুতর আহত হন। তিনি নোয়াখালী জেলার সুবর্ণচর এলাকার রাহাতের ছেলে। নিমলকে প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়েছে। কুমিরা হাইওয়ে থানা পুলিশ দুর্ঘটনা কবলিত ট্রাক ও মিনি পিকআপটি উদ্ধার করেছে।ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের বড় দারোগারহাট এলাকার দায়িত্বে থাকা কুমিরা হাইওয়ে পুলিশের ইনচার্জ শাহাদাত হোসেন সড়ক দুর্ঘটনায় পিতা-পুত্র নিহতের সত্যতা স্বীকার করেছেন।তিনি জানান, নিহতদের সুরতহাল শেষে লাশ স্বজনদের বুঝিয়ে দেওয়া হয়েছে এবং দুর্ঘটনা কবলিত ট্রাক ও মিনি পিকআপ উদ্ধার করে থানায় নিয়ে আসা হয়েছে। চালক পলাতক রয়েছেন। বর্তমানে ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কে যান চলাচল স্বাভাবিক রয়েছে।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো সংবাদ