শনিবার, ১৩ এপ্রিল ২০২৪, ০২:৫৬ অপরাহ্ন

রাশিয়ার দুটি অঞ্চলে সামরিক বিজয় প্যারেড বাতিল করেছে

প্রতিনিধির / ৭১ বার
আপডেট : বৃহস্পতিবার, ১৩ এপ্রিল, ২০২৩
রাশিয়ার দুটি অঞ্চলে সামরিক বিজয় প্যারেড বাতিল করেছে
রাশিয়ার দুটি অঞ্চলে সামরিক বিজয় প্যারেড বাতিল করেছে

আগামী মাসে অনুষ্ঠেয় সামরিক বিজয় প্যারেড বাতিল করেছে রাশিয়া। দুটি রুশ অঞ্চলের গভর্নর বলেছেন, নিরাপত্তা উদ্বেগ থেকে এটি বাতিল করা হয়েছে। তবে মার্কিন সাময়িকী নিউজ উইক এক প্রতিবেদনে ইঙ্গিত দিয়েছে, ইউক্রেনে যুদ্ধের কারণে রাশিয়ার সামরিক সরঞ্জাম স্বল্পতা তৈরি হয়েছে। এই কারণে বিজয় প্যারেড বাতিল করা হয়ে থাকতে পারে।

প্রতি বছর মে মাসের ৯ তারিখ রাশিয়ার বিভিন্ন অঞ্চলে বিজয় প্যারেড আয়োজন করা হয়ে থাকে। দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধে নাত্সীদের বিরুদ্ধে সাবেক সোভিয়েত ইউনিয়নে বিজয় উদযাপনে এই সামরিক প্যারেড আয়োজন করা হয়। রাশিয়ায় এই যুদ্ধকে মহান দেশাত্মবোধের যুদ্ধ হিসেবে উল্লেখ করা হয়। এই বিজয় উদযাপনের বৃহত্তম আয়োজন থাকে মস্কোর রেড স্কয়ারে। এখানে সেনারা কুচকাওয়াজে অংশ নেন। রুশ সেনাবাহিনীর শক্তি প্রদর্শনে হাজির করা হয় বর্ণিল অস্ত্র সম্ভার। ধারণা করা হচ্ছে, ইউক্রেনে রুশ আক্রমণের পর রাশিয়ার অস্ত্রভান্ডারে টান পড়েছে। যুদ্ধের কারণে ইউক্রেন সীমান্তবর্তী কুর্স্ক ও বেলগোরদ অঞ্চলের গভর্নর স্থানীয় আয়োজন বাতিল করেছেন।কুর্স্ক গভর্নর রোমান স্টারোভয়ত বলেছেন, নিরাপত্তাজনিত কারণে আঞ্চলিক রাজধানীতে কোনো বিজয় প্যারেড আয়োজন করা হবে না। বেলগোরদ গর্ভনর ভিয়াচেস্লাভ গ্লাডকভ বলেছেন, বিপুলসংখ্যক সেনা ও যানবাহন সমবেত করে শত্রুকে উসকানি দেওয়া থেকে বিরত থাকতে আঞ্চলিক রাজধানীর প্রাণকেন্দ্রে প্যারেড আয়োজন করা হবে না। তবে ইউক্রেন যুদ্ধ নিয়ে হালনাগাদ তথ্য সরবরাহকারী টেন্ডারের টুইটার অ্যাকাউন্টে বলা হয়েছে, দুই গভর্নর এই সিদ্ধান্ত নিয়েছেন কারণ তাদের কাছে সক্রিয় ট্যাংক পর্যাপ্ত সংখ্যায় নেই। এই মুহূর্তে যুদ্ধক্ষেত্রে সব রুশ ট্যাংক প্রয়োজন। প্যারেডে অংশ নেওয়ার মতো সামরিক যানগুলো বড় শহরে নেওয়া হবে।

এর আগে গত বছর ৯ মে মস্কোর বিজয় উদযাপনের এয়ার শো বাতিল করা হয়েছিল খারাপ আবহাওয়ার কারণ দেখিয়ে।আরেক টুইটার ব্যবহারকারী মারিয়া দ্রুতস্কাও প্যারেড বাতিলের কারণ হিসেবে ট্যাংকের স্বল্পতার কথা তুলে ধরেছেন। তিনি লিখেছেন, টি-৩৪ ট্যাংক ছাড়া তাদের আরো প্রদর্শন করার মতো কিছু নেই বলেই কি এই সিদ্ধান্ত? অথবা তারা অতিরিক্ত দাতব্য আতশবাজি চায় না? নাকি অন্য কোনো কারণে। যুদ্ধ শুরুর পর বেলগোরদ ও কুর্স্ক অঞ্চলে ইউক্রেনের বিরুদ্ধে নিয়মিত ড্রোন ও রকেট হামলার অভিযোগ করে আসছেন রুশ কর্মকর্তারা।গত বছর বিজয় দিবসে প্যারেড আয়োজন করেছিল অঞ্চল দুটি। এতে সহস্রাধিক সেনা ও নিরাপত্তাবাহিনীর সদস্যরা অংশ নেয়। তবে ২০১৪ সালে রাশিয়ার দখলকৃত ক্রিমিয়াতে বিজয় দিবসের প্যারেড অনুষ্ঠিত হবে বলে জানিয়েছেন স্থানীয় কর্মকর্তারা।

দ্য মস্কো টাইমস এক প্রতিবেদনে উল্লেখ করেছে, বিজয় দিবসে প্যারেড আয়োজনের সিদ্ধান্ত স্থানীয় কর্তৃপক্ষের ওপর ছেড়ে দিয়েছে মস্কো।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো সংবাদ