শনিবার, ১৩ এপ্রিল ২০২৪, ০২:৪৮ অপরাহ্ন

জুনের শেষেই চীনকে ছাড়িয়ে বিশ্বের সর্বোচ্চ জনসংখ্যার দেশ হবে ভারত

প্রতিনিধির / ১৫৪ বার
আপডেট : বৃহস্পতিবার, ২০ এপ্রিল, ২০২৩
জুনের শেষেই চীনকে ছাড়িয়ে বিশ্বের সর্বোচ্চ জনসংখ্যার দেশ হবে ভারত
জুনের শেষেই চীনকে ছাড়িয়ে বিশ্বের সর্বোচ্চ জনসংখ্যার দেশ হবে ভারত

চলতি বছরের জুনের শেষেই চীনকে ছাড়িয়ে বিশ্বের সর্বোচ্চ জনসংখ্যার দেশ হবে ভারত। গতকাল বুধবার প্রকাশিত বিশ্ব জনসংখ্যা পরিস্থিতি প্রতিবেদনে এই পূর্বাভাস দিয়েছে জাতিসংঘ। বিশ্ব সংস্থার যৌন ও প্রজনন স্বাস্থ্যবিষয়ক অঙ্গ সংস্থা জাতিসংঘ জনসংখ্যা তহবিলের (ইউএনএফপিএ) প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, এ বছরের মাঝামাঝি ভারতের জনসংখ্যা হবে ১৪২ কোটি ৮৬ লাখ। এ সময়ে চীনের জনসংখ্যা হবে ১৪২ কোটি ৫৭ লাখ।

কয়েক শ বছর ধরে জনসংখ্যায় বিশ্বের শীর্ষ দেশ ছিল চীন। ১৯৬০ সালের পর থেকে গত বছর প্রথমবারের মতো দেশটির জনসংখ্যা কমেছে। অন্যদিকে ভারতের জনসংখ্যা বৃদ্ধি অব্যাহত রয়েছে। পিউ রিসার্চ সেন্টারের তথ্যমতে, ১৯৫০ সাল থেকে ভারতের জনসংখ্যা এক শ কোটিরও বেশি বেড়েছে। জাতিসংঘের প্রতিবেদন অনুযায়ী, ভারতের প্রায় অর্ধেক জনসংখ্যার বয়স এখন ২৫ বছরের নিচে।জনবিস্ফোরণ ঠেকাতে চীন ১৯৮০-এর দশকে কঠোর ‘এক সন্তান নীতি’ গ্রহণ করেছিল। ক্রমে কর্মক্ষম মানুষের সংখ্যা উদ্বেগজনকভাবে কমে এলে ২০১৬ সালে দেশটি ওই নীতি থেকে সরে আসে। চীন ২০২১ সাল থেকে দম্পতিদের তিনটি করে সন্তান গ্রহণের জন্য উদ্বুদ্ধ করে আসছে।

চীনের জনসংখ্যা হ্রাসের পেছনে জীবনযাত্রার ক্রমবর্ধমান ব্যয়, উল্লেখযোগ্যসংখ্যক নারীর কর্মক্ষেত্রে অংশগ্রহণ ও উচ্চশিক্ষাকে মূল কারণ হিসেবে মনে করা হয়। বর্তমানে ভারতের জনসংখ্যা ঠিক কত সে বিষয়ে সর্বশেষ কোনো তথ্য নেই। কারণ দেশটিতে ২০১১ সালের পর আর আদমশুমারি করা হয়নি। ২০২১ সালে শুমারি করার কথা থাকলেও করোনা মহামারির কারণে তা সম্ভব হয়নি।জাতিসংঘের প্রতিবেদনে আরো বলা হয়েছে, ২০২৩ সালের মাঝামাঝি বিশ্বের মোট জনসংখ্যা হবে ৮০৪ কোটি ৫০ লাখ। তখন এই গ্রহের মোট জনসংখ্যার প্রতি পাঁচজনের একজন হবে ভারতীয়।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো সংবাদ