শনিবার, ১৩ এপ্রিল ২০২৪, ০৩:৫০ অপরাহ্ন

অর্থনীতিসহ বিভিন্ন খাতে বাংলাদেশের সঙ্গে কাজ করতে চায় বেলজিয়াম

প্রতিনিধির / ৭১ বার
আপডেট : শনিবার, ৬ মে, ২০২৩
অর্থনীতিসহ বিভিন্ন খাতে বাংলাদেশের সঙ্গে কাজ করতে চায় বেলজিয়াম
অর্থনীতিসহ বিভিন্ন খাতে বাংলাদেশের সঙ্গে কাজ করতে চায় বেলজিয়াম

অর্থনীতিসহ বিভিন্ন খাতে বাংলাদেশের সঙ্গে কাজ করতে চায় বেলজিয়াম। গত বৃহস্পতিবার ব্রাসেলসে দুই দেশের প্রথম দ্বিপক্ষীয় আলোচনায় বেলজিয়াম পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মহাপরিচালক (দ্বিপক্ষীয় বিষয়াবলি) জেরোয়েন কুরম্যান এ কথা জানান। তিনি আলোচনায় বেলজিয়াম প্রতিনিধিদলের নেতৃত্ব দেন। অন্যদিকে বাংলাদেশ প্রতিনিধিদলের নেতৃত্ব দেন পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মহাপরিচালক (পশ্চিম ইউরোপ ও ইউরোপিয়ান ইউনিয়ন) কাজী রাসেল পারভেজ।

ব্রাসেলসে বাংলাদেশ দূতাবাস গতকাল শুক্রবার এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানায়, দ্বিপক্ষীয় ও বহুপক্ষীয় সহযোগিতা এবং আঞ্চলিক বিষয়ের আওতায় বাণিজ্য ও বিনিয়োগ, জলবায়ু পরিবর্তন, রোহিঙ্গা সংকট, আন্তর্জাতিক সংস্থায় নির্বাচন, বাংলাদেশ-ইউরোপিয়ান ইউনিয়ন সম্পর্ক, ইন্দো-প্যাসিফিক ও ইউক্রেন ইস্যু নিয়ে ফলপ্রসূ আলোচনা হয়েছে।আলোচনার শুরুতে বেলজিয়াম প্রতিনিধিদলের প্রধান জেরোয়েন কুরম্যান বেলজিয়ামের রানির সাম্প্রতিক বাংলাদেশ সফরকে অত্যন্ত ইতিবাচক হিসেবে তুলে ধরেন। তিনি বলেন, এ সফর বাংলাদেশ ও বেলজিয়ামের মধ্যকার ক্রমবর্ধমান সম্পর্ককে আরো শক্তিশালী করবে।

বেলজিয়াম প্রতিনিধিদলের প্রধান বলেন, বাংলাদেশ-বেলজিয়াম সম্পর্ক অর্থনৈতিক সহযোগিতার পরিবর্তে এখন বাণিজ্য ও বিনিয়োগভিত্তিক সম্পর্কে পরিণত হয়েছে। এ সময় তিনি নবায়নযোগ্য শক্তি, ড্রেজিং, সমুদ্র অর্থনীতিসহ বিভিন্ন খাতে বাংলাদেশের সঙ্গে বেলজিয়ামের কাজ করার আগ্রহ প্রকাশ করেন।বাংলাদেশের প্রতিনিধিদলের প্রধান কাজী রাসেল পারভেজ বাংলাদেশে চলমান অর্থনৈতিক উন্নয়ন কর্মকাণ্ড তুলে ধরে বাংলাদেশে আরো বেলজিয়ান বিনিয়োগের অনুরোধ জানান। দুই দেশের মধ্যকার বাণিজ্যের পরিমাণ প্রায় ১০০ কোটি ডলার উল্লেখ করে তিনি বলেন, বাংলাদেশে বিনিয়োগ সুবিধা, বিশেষ অর্থনৈতিক অঞ্চল এবং সম্ভাবনাময় বাজার। বেলজিয়ামকে বাংলাদেশের স্বাস্থ্য, কারিগরি ও বৃত্তিমূলক শিক্ষা, এনার্জি, জলবায়ু পরিবর্তন, অবকাঠামোগত উন্নয়ন, তথ্য-প্রযুক্তি খাতে নতুন বিনিয়োগের অনুরোধ জানান তিনি।

বেলজিয়ামের জুলস বোর্দে ইনস্টিটিউট ও বাংলাদেশের জাতীয় ক্যান্সার গবেষণা ইনস্টিটিউট ও হাসপাতালের মধ্যে ক্যান্সার গবেষণা বিষয়ে একটি সমঝোতা স্মারক স্বাক্ষরের অগ্রগতি সম্পর্কে আলোচনা হয়। এ ছাড়া বেলজিয়ামের এগমন্ট ইনস্টিটিউট এবং বাংলাদেশের ফরেন সার্ভিস একাডেমির মধ্যে সহযোগিতা বৃদ্ধির বিষয়েও দুই পক্ষ একমত হয়। দীর্ঘদিন ধরে রোহিঙ্গাদের বাংলাদেশে আশ্রয় প্রদানের জন্য কুরম্যান বাংলাদেশের উদারতার প্রশংসা করে বলেন, রোহিঙ্গাদের প্রত্যাবাসন উদ্যোগে বেলজিয়াম সহযোগিতা অব্যাহত রাখবে।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো সংবাদ