শনিবার, ১৫ জুন ২০২৪, ০৮:২৯ পূর্বাহ্ন

শিরোপার খুব কাছে পিএসজি

প্রতিনিধির / ১৮২ বার
আপডেট : সোমবার, ২২ মে, ২০২৩
শিরোপার খুব কাছে পিএসজি
শিরোপার খুব কাছে পিএসজি

খেলা তখনো জমে উঠেনি, দর্শকদের বেশির ভাগও বসে সারেনি; এরই মাঝে প্রতিপক্ষের জালে জোড়া গোল দিয়ে বসল পিএসজি! দুটি গোলই করলেন কিলিয়ান এমবাপ্পে। প্রথমটায় বল বাড়িয়েছেন ফ্যাবিয়ান, পরেরটায় লিওনেল মেসি। ম্যাচের মাত্র ৮ মিনিটেই ২-০ গোলে এগিয়ে যায় পিএসজি।

লিগ ওয়ানের ম্যাচে রোববার অক্সের মুখোমুখি হয়েছিল পিএসজি। শুরুতে দুই গোল করলেও বাকি সময়ে আশাহত করেছে প্যারিসের দলটা। আর কোনো গোল পায়নি তারা, বিপরীতে একটি গোল হজম করে নাটকীয়তার জন্ম দেয় প্যারিসের দলটি। তবে অঘটন ঘটেনি, ২-১ গোলের জয় নিয়েই মাঠ ছেড়েছে পিএসজি।এইদিন অবশ্য দারুণ শুরু করে পিএসজি। ষষ্ঠ মিনিটে মেসির কাছ থেকে বল পেয়েই ফাবিয়ান রুইস খুঁজে নেন এমবাপ্পেকে। নিখুঁত শটে বাকিটা সারেন এই ফরোয়ার্ড। দুই মিনিট পর মেসির সরাসরি পাস থেকেই স্কোরলাইন ২-০ করেন এমবাপ্পে। দুই মিনিট পর হ্যাটট্রিকও হয়ে যেতো, তবে সেই সুযোগ ব‍্যর্থ করে দেন অক্স ডিফেন্ডার জুবাল।

তবে এরপর থেকেই জমে উঠে খেলা। আক্রমণ-পাল্টা আক্রমণে খেলা জমিয়ে তুলে উভয় পক্ষ থেকে৷ ২৭তম মিনিটে প্রথম সুযোগ আসে অক্সের। তবে গটিয়ে আইনের বুলেট গতির শট ঠেকিয়ে দেন দোন্নারুম্মা। ৩৮তম মিনিটে পিএসজি রক্ষা পায় গোলপোস্টের কল্যাণে। মিডফিল্ডার রায়ান রাভেলোসনের বুলেট গতির শট ফেরে ক্রসবার কাঁপিয়ে! তবে ৪২ তম মিনিটে ফের দলকে রক্ষা করেন দোন্নারুম্মা।প্রথমার্ধে অবশ্য বেশ কিছু সুযোগ এসেছিল পিএসজির সামনেও। ৩১তম মিনিটে মেসি তো প্রায় গোল পেয়েই যাচ্ছিলেন। তবে তার শট ঝাঁপিয়ে ব্যর্থ করে দেন অক্সের গোলরক্ষক। আবার ৪৫তম মিনিটে মেসি আরো একটা শট অক্সের একজনের গায়ে লেগে দিক পাল্টে লক্ষ্যভ্রষ্ট হয়।

দ্বিতীয়ার্ধের শুরুতেই অবশ্য গোল পেয়ে যায় অক্স। ৫১তম মিনিটে দা কস্তার দারুণ ফ্লিকে বল পেয়ে বুলেট গতির শটে ব্যবধান কমান সিনায়োকো। স্কোর তখন ২-১। অবশ্য মিনিটে ছয়েক পরেই ব্যবধান ৩-১ হতে পারতো, যদি না দারুণ সেভে এমবাপ্পেকে হতাশ করতেন অক্সের গোলরক্ষক। অবশ্য হ্যাটট্রিক পূরনের আরো একটা সুযোগ পেয়েছিলেন এমবাপ্পে।এমনকি যোগ করা সময়ের তৃতীয় মিনিটে জালে বল পাঠিয়েছিলেন এমবাপ্পে। মেতেও উঠেছিলেন হ‍্যাটট্রিকের আনন্দে। কিন্তু অফসাইডে থাকায় শেষ পর্যন্ত সেই গোল আর মেলেনি! তবে ম‍্যাচের শেষ শটেও তার সামনে সুযোগ ছিল, কিন্তু শট লক্ষ‍্যে রাখতে পারেননি তিনি। ফলে জোড়া গোলেই সন্তুষ্ট থাকতে হলো এমবাপ্পেকে৷ পিএসজিকেও সন্তুষ্ট থাকতে হয় ২-১ গোলের জয় নিয়ে।

এ জয়ে শিরোপার খুব কাছে পৌঁছে গেল পিএসজি, বলা যায় নিশ্চিতই করে ফেলেছে। ৩৬ ম্যাচ শেষে শীর্ষে থাকা পিএসজির পয়েন্ট ৮৪। সমান ম্যাচ খেলে দ্বিতীয় স্থানে থাকা লাঁসের পয়েন্ট ৭৮। শেষ দুই পিএসজি হারলে ও লাঁস জিতলেও দুই দলেরই পয়েন্ট সমান হবে। তবে গোল ব্যবধানে অনেক এগিয়ে থাকায় শিরোপা পিএসজিই পাবে।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো সংবাদ