সোমবার, ১৫ জুলাই ২০২৪, ১০:৫৭ পূর্বাহ্ন

বিশ্বকাপ আয়োজন করতে চায় সৌদি আরব

প্রতিনিধির / ১৬৭ বার
আপডেট : বুধবার, ২৪ মে, ২০২৩
বিশ্বকাপ আয়োজন করতে চায় সৌদি আরব
বিশ্বকাপ আয়োজন করতে চায় সৌদি আরব

এশিয়ান ফুটবল কনফেডারেশন (এএফসি) সভাপতি শেখ সালমান বিন ইব্রাহিম আল-খালিফা জানিয়েছেন ২০৩০ অথবা ২০৩৪ সালে এই অঞ্চলে আরও একটি বিশ্বকাপ আয়োজনে আগ্রহী তারা। এবার তারা সৌদি আরবে বিশ্বকাপ আয়োজন করতে চায়।

এশিয়ায় এখন পর্যন্ত দুইবার বিশ্বকাপ অনুষ্ঠিত হয়েছে। ২০০২ সালে দক্ষিণ কোরিয়া ও জাপানে যৌথভাবে। আর সর্বশেষ ২০২২ সালে অনুষ্ঠিত হয় কাতারে।সিরিয়া ও লেবানন সফরে গিয়ে সোমবার বৈরুতে সাংবাদিকদের কাছে বাহরাইনের শেখ সালমান বলেন, ‘আমি মনে করি এই ধরনের টুর্নামেন্ট আয়োজনের সব ধরনের যোগ্যতা সৌদি আরবের রয়েছে। কিন্তু আমাদের সঠিক সময় বেছে নিতে হবে, সেটা হতে পারে ২০৩০ কিংবা ২০৩৪। তবে ২০৩৪ সালে হলে সেটা বেশি ভাল হবে। আমরা সেটার দিকেই তাকিয়ে আছি। তবে ২০৩০’এ যদি পরিস্থিতি অনুকূলে থাকে তবে তার জন্যও আমরা প্রস্তুত আছি।’

২০২৬ বিশ্বকাপে প্রথমবারের মত ৪৮ দল নিয়ে যুক্তরাষ্ট্র, কানাডা ও মেক্সিকোতে বিশ্বকাপ আয়োজিত হতে যাচ্ছে। ইতোমধ্যেই ২০৩০ বিশ্বকাপের জন্য দুটি যৌথ বিডের প্রস্তাব রয়েছে- স্পেন, পর্তুগাল ও মরক্কো মিলে একটি এবং আর্জেন্টিনা, চিলি, উরুগুয়ে ও প্যারাগুয়ে আরও একটি বিডে অংশ নেওয়ার আগ্রহ জানিয়েছে।গত সেপ্টেম্বরে মিশরীয় যুব ও ক্রীড়া মন্ত্রী মুহাম্মদ ফাওজির পক্ষে এক মুখপাত্র জানিয়েছিলেন বিশ্বকাপে আয়োজনে সৌদি আরব ও গ্রীস যৌথ বিডে অংশ নিতে চায়। এদিকে সৌদি ক্রীড়া মন্ত্রী প্রিন্স আব্দুলাজিজ বিন তুরকি আল ফয়সাল ফেব্রুয়ারিতে বার্তা সংস্থা এএফপিকে জানিয়েছেন, তার দেশ এখনো পর্যন্ত প্রার্থিতার সম্পর্কিত কোন ফাইল জমা দেয়নি। কিন্তু একইসঙ্গে তিনি বলেছেন সবকিছুই সম্ভব।

শেখ সালমান জানিয়েছেন, তিনি আগে নিশ্চিত হতে চান যেকোনো বিডে এএফসি সমন্বিত আছে এবং তাদের পূর্ণ সমর্থন আছে। এএফসি সভাপতি বলেন, ‘আমরা কন্টিনেন্টাল ফেডারেশন ও ফিফার সঙ্গে সমন্বয় করছি। যেকোনো দেশের সঙ্গে যৌথ বিডে যাওয়ার জন্য সব ধরনের সমঝোতার বিষয়টিও আমরা বিবেচনা করছি যাতে দ্রুত একটি ফাইল উপস্থাপন করা যায়। অন্তত ৯০ ভাগ সফলতা নিশ্চিত করেই আমরা সবকিছু করতে চাই। আমাদের হাতে ৪৭টি ভোট আছে, যেখানে বিশ্বকাপের স্বাগতিক হতে হলে ১১০ ভোটের প্রয়োজন হয়। অন্যান্য মহাদেশীয় সমর্থন আমাদের প্রয়োজন। এজন্য আমাদের আরও কাজ করতে হবে।’

 


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো সংবাদ