বুধবার, ১৭ জুলাই ২০২৪, ০৯:৩২ অপরাহ্ন

বর্জ্য থেকে বিদ্যুৎ উৎপাদনে যাচ্ছে সরকার

প্রতিনিধির / ২১৬ বার
আপডেট : বৃহস্পতিবার, ১৫ জুন, ২০২৩
বর্জ্য থেকে বিদ্যুৎ উৎপাদনে যাচ্ছে সরকার
বর্জ্য থেকে বিদ্যুৎ উৎপাদনে যাচ্ছে সরকার

স্থানীয় সরকার পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রী মো. তাজুল ইসলাম বলেছেন, বাংলাদেশে ব্যাপক অর্থনৈতিক উন্নতির প্রেক্ষিতে দেশের সকল মানুষের আয় বৃদ্ধি পেয়েছে। আয় বাড়ার সাথে সাথে মানুষের ভোগ বৃদ্ধি পাওয়ায় গ্রাম থেকে শহরে সর্বত্র বর্জ্য উৎপাদন বহুগুণ বৃদ্ধি পেয়েছে। এ বর্ধিত বর্জ্য নিষ্পত্তি করতে না পারলে দেশের সার্বিক পরিবেশের বিপর্যয় ঘটবে। সেজন্য স্থানীয় সরকার বিভাগের নেতৃত্বে গৃহস্থালীর বর্জ্য হতে বিদ্যুৎ উৎপাদনের মাধ্যমে সারা বাংলাদেশের বর্জ্য নিষ্পত্তির প্রয়োজনীয় উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে।

যা বাংলাদেশের জন্য এক যুগান্তকারী অর্জন।আজ বৃহস্পতিবার সচিবালয়ে স্থানীয় সরকার বিভাগের সভাকক্ষে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা কর্তৃক আমিনবাজার ল্যান্ডফিলের ‘বর্জ্য থেকে বিদ্যুৎ উৎপাদন প্লান্ট’ এর ভিত্তি প্রস্থর স্থাপন অনুষ্ঠানের প্রস্তুতি গ্রহণবিষয়ক সভায় তিনি এ কথা বলেন।এ সময় তিনি বলেন, ‘ইনসিনারেশন ব্যবস্থা অনুসরণে বিদ্যুৎ উৎপাদনের মাধ্যমে বর্জ্য নিষ্পত্তির সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হয়েছে। এতে পরিবেশ সুন্দর ও পরিচ্ছন্ন থাকবে।

৪২.৫ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ প্রতিদিন ৩০০০ টন মিক্সড বর্জ্য থেকে উৎপাদন করা হবে। এ প্রকল্প আগামী ২৪ মাসের মধ্যে বাস্তবায়িত হলে উৎপাদিত বিদ্যুৎ বাংলাদেশ পাওয়ার ডেভেলপমেন্ট বোর্ড ২৫ বছর পর্যন্ত ক্রয় করবে। এ প্রকল্পের সর্বমোট ব্যয় হবে তিন শ মিলিয়ন ইউএস ডলার।’মন্ত্রী আরো বলেন, ‘টেকসই উন্নয়নের জন্য এ ধরনের প্রকল্পের কোনো বিকল্প নেই।

এ প্রকল্পের মাধ্যমে যেমন আমাদের বর্জ্য নিষ্পত্তি হবে তেমনি বিদ্যুতের মতো অতি প্রয়োজনীয় শক্তি আমরা উৎপাদন করতে পারব। এটি আমাদের ক্রমবর্ধমান বিদ্যুৎ চাহিদার কিছুটা সংকুলান করবে। ২০২৫ সালের অক্টোবর মাস থেকে বিদ্যুৎ উৎপাদনের লক্ষমাত্রা নির্ধারণ করা হয়েছে।’সভায় বিদ্যুৎ জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী নজরুল হামিদ বলেন, ‘সম্পূর্ণ বিদেশি বিনিয়োগের মাধ্যমে এই প্রকল্প বাস্তবায়িত হওয়ায় তা আমাদের বিদ্যুৎ খাতকে আরো শক্তিশালী করবে।’

ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশনের মেয়র আতিকুল ইসলাম বলেন, ‘এ প্রকল্প বাস্তবায়িত হলে ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশন তার নাগরিকদের আরো উন্নত সেবা প্রদান করতে পারবে।সভার আরো উপস্থিত ছিলেন স্থানীয় সরকার বিভাগের সচিব মুহম্মদ ইবরাহিমসহ ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশন ও স্থানীয় সরকার বিভাগের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাবৃন্দ।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো সংবাদ